ডা. মঈন উদ্দিনকে স্যালুট মাশরাফির

প্রকাশিত : ১৬ এপ্রিল ২০২০

করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করে শেষ পর্যন্ত মৃত্যুকে বরণ করে নিতে হয়েছে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডা. মঈন উদ্দিন।
করোনায় আক্রান্ত হবার পর ডা. মঈন উদ্দিনকে নিয়ে আসা হয় ঢাকার কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল মঙ্গলবার ভোরে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।
ডা. মঈন উদ্দিনের মৃত্যুতে গোটা দেশের মানুষ যেমন শোকাহত হয়েছেন তেমনই বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক ও নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা।
মাশরাফি নিজেও এই পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের জন্য নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন নিজের এলাকায়। এছাড়াও সারা দেশের মানুষকে বিভিন্ন পরামর্শ ও নিয়ম-কানুন মেনে চলার আহ্বান করে আসছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
ডা. মঈন উদ্দিনের মৃত্যু ছুঁয়ে গেছে মাশরাফি। এনিয়ে সাবেক টাইগার অধিনায়ক ফেসবুকে লেখেন, সবাইকে শোকে ভাসিয়ে চলে গেলেন এক মহৎ প্রাণ ডাক্তার! করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গতকাল সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক মানবিক ডা. মঈন উদ্দিন চলে গেলেন না ফেরার দেশে! তিনি ছিলেন করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ফ্রন্ট লাইনের যোদ্ধা। তাঁর এই মৃত্যু হৃদয় বিদীর্ণ করার মতো।
মানবিক ডাক্তার খ্যাত মঈন উদ্দিন গরিব রোগীদের চিকিৎসা দিয়েছেন বিনামূল্যে। এনিয়ে মাশরাফি লেখেন, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের ছোবলে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশও আক্রান্ত। দেশের এই মহা ক্রান্তিকালে ডা. মঈন উদ্দিন ছিলেন দেশের মানুষের জন্য আত্মোৎসর্গকৃত। মৃত্যুর আগ মুহূর্ত পর্যন্ত একজন মানবসেবী হিসেবে মানুষের সেবা করে গেছেন তিনি। নিজের জীবনের সর্বোচ্চ ঝুঁকি নিয়ে মানুষকে তিনি চিকিৎসাসেবা দিয়ে গেছেন।
মানুষের প্রতি, দেশের প্রতি তার এই আত্মত্যাগ শব্দ-বাক্যে প্রকাশের মত নয়। মানবতার জয়গান গাওয়া ক্রান্তিকালের এই যোদ্ধাকে নিশ্চয় গোটা জাতি আজীবন পরম শ্রদ্ধায় স্মরণ করবে।
শেষে ডা. মঈন উদ্দিনের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে মাশরাফি লেখেন, আমি তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি। সবশেষে আমি এই বীরযোদ্ধাকে জানাচ্ছি- “স্যালুট”।

আপনার মতামত লিখুন :