ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট : ১২৬ রানেই শেষ বাংলাদেশ

প্রকাশিত : ১০ জানুয়ারি ২০২২

ভোরের দর্পণ ডেস্ক:

স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে চলমান ক্রাইস্টচার্চ টেস্টের দ্বিতীয় দিনে মাত্র ১২৬ রানে গুটিয়ে গেছে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস। ফলে দিন শেষে নিউজিল্যান্ড ৩৯৫ রানে এগিয়ে রয়েছে।

আজ সোমবার (১০ জানুয়ারি) দ্বিতীয় দিনেই যেন ম্যাচের গতিপথ একদম চূড়ান্ত পর্যায়ে। স্বাগতিকরা ৬ উইকেটে ৫২১ রান করে ইনিংস ছেড়ে দেওয়ার পর বাংলাদেশের ইনিংস টিকেছে  ৪১.২ ওভার।

তৃতীয় দিনে নিউজিল্যান্ড বাংলাদেশকে আবার ব্যাটিং করতে পাঠাবে কিনা তা এখনও জানা যায়নি। তবে বোলাররা ক্লান্ত না হওয়ায় ফলোঅন করানোরই কথা। সেক্ষেত্রে ইনিংস হার বাঁচানো এখন মুমিনুল হকদের সামনে ভীষণ কঠিন ব্যাপার।

মাউন্ট মঙ্গানুইয়ের স্বপ্ন ক্রাইস্টচার্চের প্রথম দিনই ভেঙে গিয়েছিল অনেকটা। আজ ব্যাটিংয়ে নেমে যেন চরম বাস্তবতার মুখোমুখি দাঁড়িয়ে গেলেন বাংলাদেশ ব্যাটসম্যানরা। হ্যাগলি ওভালের সবুজ উইকেটে বাংলাদেশ পেসাররা যেটা করতে পারেননি, সেই আক্রমণাত্মক লেংথে শুরু থেকেই বোলিং করে গেছেন বোল্ট-সাউদি। পেয়েছেন পুরস্কারও।

এর আগে দিনের প্রথম বলে ডেভন কনওয়ে সিরিজে শতক পূর্ণ করেন। এছাড়া অধিনায়ক টম ল্যাথামও কিছুক্ষণ পর ডাবল সেঞ্চুরি করেন।

মেহেদি হাসান মিরাজের বলে কনওয়ে রান আউট হওয়ার পর রস টেলর ব্যাট করতে মাঠে নামলে বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা তাকে গার্ড অব অনার দেন। এই টেস্টের পর সাদা পোশাকে টেলরেকে আর দেখা যাবে না।

শেষ টেস্টের প্রথম ইনিংসে টেলর ২৮ রানে আউট হন। যদিও এই টেস্টে তার আর ব্যাট করার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ। এ নিয়ে টেলর মোট ১১২টি টেস্ট খেলেন। ১৯টি সেঞ্চুরি ও ৩৫টি হাফ সেঞ্চুরিসহ ৭ হাজার ৫০০ এর বেশি রান করেন তিনি।

শেষ পর্যন্ত ১২৮ দশমিক ৫ ওভারে ছয় উইকেটে ৫২১ রানে ইনিংস ঘোষণা করে নিউজিল্যান্ড।

স্বাগতিকদের বিশাল স্কোরের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমেই বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। দলীয় ১১ রানেই তাদের চার উইকেট হারায়। শেষ পর্যন্ত দলীয় ১২৬ রান হয় ইয়াসির আলি রাব্বির ৫৫ ও নুরুল হাসান সোহানের ৪১ রানের কল্যাণে।

বাংলাদেশের টপ অর্ডারের পাঁচ ব্যাটারের কেউই দুই অঙ্কের স্কোরে পৌঁছতে পারেনি। এর মধ্যে দুজন শূন্য রানে বিদায় নেন।

কিউইদের হয়ে ট্রেন্ট বোল্ট পাঁচ উইকেট পান। ক্যারিয়ারের ৩০০ উইকেট নেওয়ার দিন ৪৩ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের বাঁহাতি পেসার। এছাড়া টিম সাউদি তিনটি এবং কাইল জেমিসন দুটি উইকেট নেন।

দিনের খেলা শেষে বোল্ট বলেন, ‘এই মাইলস্টোন আসলে কোন ব্যাপার না, এই তালিকায় বেশ কিছু বড় নাম আছে। উইকেটে ভালো গতি এবং বাউন্স ছিল,  আমি বোলিং উপভোগ করেছি।’

এর আগে মাউন্ট মঙ্গানুইতে প্রথম টেস্টে স্বাগতিকদের আট উইকেটে হারিয়েছিল বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

(দ্বিতীয় দিন শেষে)

নিউজিল্যান্ড প্রথম ইনিংস: ১২৮.৫ ওভারে ৫২১/৫ (ইনিংস ঘোষণা)  (ল্যাথাম ২৫২,  ইয়ং ৫৪, কনওয়ে ১০৯, টেইলর ২৮, নিকোলস ০, মিচেল ৩, ব্ল্যান্ডেল ৫৭*, জেমিসন ৪*   ; তাসকিন  ০/১১৭ , শরিফুল ২/৭৯,  ইবাদত ২/১৪৩, মিরাজ ০/১২৫, শান্ত ০/১৫, মুমিনুল ১/৩৪)

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ৪১.২ ওভারে ১২৬ (সাদমান ৭, নাঈম ০, শান্ত ৪, মুমিনুল ০, লিটন ৮, ইয়াসির ৫৫ , সোহান ৪১, মিরাজ ৫, তাসকিন ২, শরিফুল ২, ইবাদত ০*  ; সাউদি ৩/২৮  , বোল্ট ৫/৪৩,   জেমিসন ২/৩২, ওয়েগনার ০/২৩)

আপনার মতামত লিখুন :