সেঞ্চুরির লোভ দেখিয়ে লাখ টাকার ব্যাট নিয়ে নেন মাশরাফি

প্রকাশিত : ৫ মে ২০২০

‘সুপারপাওয়ার পেলে তো ধরেন চাইতাম যেন, প্রতিদিনই সেঞ্চুরি করতে পারি। আমি বাসায় বসে থাকব। আমার আত্মাটা আমার হয়ে খেলবে, সেঞ্চুরি মারবে, হাততালি পাবে। প্রতিদিন সেঞ্চুরি করতে কার না ভাল লাগবে?’- সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এভাবেই কথাগুলো বলছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের বাঁহাতি ওপেনার তামিম ইকবাল।

শুধু তামিম কেন, বিশ্বের যেকোন ব্যাটসম্যানের জন্যই সেঞ্চুরি মানে বিশেষ কিছু। প্রতি ম্যাচেই সবার আশা থাকে সেঞ্চুরি করার। তবে তা হয় না প্রতিদিন, যেদিন হয় সেটাই হয়ে থাকে স্মরণীয়। আর তামিমের এ সেঞ্চুরির প্রতি লোভটাই নিজের কার্যসিদ্ধি হাসিলে কাজে লাগিয়েছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা।

তামিমকে তিনি বলতেন, তুই আমাকে খেলতে ব্যাট দিলে সেঞ্চুরি করতে পারবি। এমন করে প্রায়ই তামিমের ব্যাট নিয়ে নিজে নেমে যেতেন মাশরাফি। পরে সেই ব্যাট আবার ফেরত দেয়ারও নাম নিতেন টাইগারদের সাবেক অধিনায়ক। একবার দুই ব্যাটের বদলে এক লাখ টাকা দেবেন বললেও, এখনও সে টাকা বাকিই রয়ে গেছে।

এদিকে কাকতালীয়ভাবে মাশরাফিকে ব্যাট দিলে ঠিকই সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ফেলেন তামিম। যার সবশেষ উদাহরণ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঘরের মাঠে হোম সিরিজ। যেখানে তিনি করেছেন জোড়া সেঞ্চুরি। সোমবার ফেসবুক লাইভে এ গল্পই শুনিয়েছেন তামিম ও মাশরাফি।

শুরুটা করেন তামিমই। তিনি বলেন, ‘ভাই! আপনি যে আমার কাছ থেকে ব্ল্যাকমেইল করে ব্যাটগুলো নেন, বলেন যে ব্যাট দিলেই সেঞ্চুরি করবি, ব্যাট দিলেই রান করবি। এটার কাহিনীটা কী? আপনাকে ব্যাট দেওয়ার কারণে লাস্ট সিরিজে আসলেও আমি দুইটা সেঞ্চুরি করছি। কিন্তু ব্যাটের সঙ্গে এর সম্পর্কটা কী?

এসময় প্রথমে মজা করে মাশরাফি উত্তর দেন, ‘ব্যাটের সাথে সম্পর্ক হলো ব্যাটের দাম। একটা ব্যাটের দাম ৫০ হাজার টাকা, তুই যে ব্যাট দিয়ে খেলিস। সৌম্যরা যেগুলো দিয়ে খেলে সেগুলো হয়তো ৪০ হাজার বা এরকমই কাছাকাছি। একটা ব্যাটের দাম ৫০ হাজার টাকা। আমি চিন্তা করি ৫০ হাজার টাকা দিয়ে একটা ব্যাট কিনে লাভ কী? তামিমের কাছ থেকেই নিয়ে নিই।’

তবে ব্যাটের দামের কথা যে স্রেফ মজা করেই বলেছেন, তা পরিষ্কার হয় মাশরাফির পরের কথায়, ‘মূল কারণ হয়েছে কী তামিম, আমি আসলে তোর ব্যাট ছাড়া খেলতে পারি না। আমি অসুস্থ হয়ে গেছি মানসিকভাবে। তোর ব্যাট ছাড়া কারও ব্যাট ভালো লাগে না আমার।’

আর এই ব্যাট দেয়া-নেয়ার চক্করে এখনও তামিমের কাছে এক লাখ টাকা ঋণী(!) মাশরাফি। দুইটি ব্যাটের বদলে এক লাখ টাকা দেয়ার কথা থাকলেও, সেটি দেয়া হয়নি এখনও। এ কথা জানিয়েছেন খোদ মাশরাফিই।

তিনি বলেন, ‘তুই অনেকবার বলছিলি আমারে, এই নেন দুইটা ব্যাট দিলাম আপনারে, এক লাখ টাকা দিয়ে দিয়েন। আমিও বলছি হ্যাঁ! এক লাখ টাকা তুই পেয়ে যাবি (হাসি)। কিন্তু টাকা তো আলহামদুলিল্লাহ বাকি।’

আপনার মতামত লিখুন :