শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে দুই ধাপ পেছাল বাংলাদেশ

প্রকাশিত : ৭ অক্টোবর ২০২১

ভোরের দর্পণ ডেস্ক:

বিশ্বের শক্তিশালী পাসপোর্ট সূচকে পিছিয়েছে বাংলাদেশ। দুই ধাপ পিছিয়ে পাসপোর্টের সূচকে চলতি বছরের অক্টোবর মাসে বাংলাদেশের অবস্থান ১০৮তম। এ সূচকে গত জুলাইয়ে ছিল ১০৬তম অবস্থানে।

বিশ্বে পাসপোর্টের মান নির্ধারণকারী সূচক ‘হেনলি পাসপোর্ট ইনডেক্স-২০২১’ এর প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে।

সূচকে বলা হয়েছে, এখন বাংলাদেশের পাসপোর্টধারীরা আগাম ভিসা ছাড়া ৪০টি দেশে ভ্রমণ করতে পারেন।

গত জুলাইয়ের সূচকে বাংলাদেশের পাসপোর্টধারীরা ৪১টি দেশে আগাম ভিসা ছাড়া ভ্রমণ করতে পারতেন।

কোন দেশের পাসপোর্টে কতটি দেশে ভিসামুক্ত ভ্রমণ করা যায়— তার ওপর ভিত্তি করে প্রকাশিত হয় ‘হেনলি পাসপোর্ট ইনডেক্স’। এক যুগের বেশি সময় ধরে এ বিষয়ে গবেষণা ও সূচক প্রকাশ করে আসছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংস্থা দ্য হেনলি অ্যান্ড পার্টনারস।

সূচকে স্থান পাওয়া ১১৬টি স্থানের মধ্যে বাংলাদেশের পাসপোর্টের অবস্থান ১০৮ নম্বরে। এর সঙ্গে রয়েছে কসোভো এবং লিবিয়া।

সূচকে বলা হয়েছে, বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীরা ভিসামুক্তভাবে যে ৪০টি গন্তব্যে যেতে পারে তার— ১৫টি আফ্রিকায়, ৯টি ক্যারিবীয় দেশে, ৫টি ওশেনিয়ায় (অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড বাদে), ৬টি এশিয়ায় এবং ১টি দক্ষিণ আমেরিকায়।

বাংলাদেশি পাসপোর্ট নিয়ে ভিসামুক্তভাবে কোনও ইউরোপীয় দেশে যাওয়া সম্ভব নয়।

হেনলির তালিকা অনুযায়ী, এবার সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্ট হচ্ছে জাপানের। জাপানের সঙ্গে শীর্ষে রয়েছে সিঙ্গাপুরও। দেশ দুটির নাগরিকেরা আগাম ভিসা ছাড়া ১৯২টি দেশে ভ্রমণ করতে পারবেন। এরপর যৌথভাবে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া ও জার্মানি।

সর্বশেষ প্রকাশিত পাসপোর্টের সূচকে দক্ষিণ এশিয়ার তিনটি দেশ বাংলাদেশের পেছনে অবস্থান করছে। এর মধ্যে নেপালের অবস্থান ১১০তম, পাকিস্তানের ১১৩তম এবং ১১৬তম তথা তালিকায় সর্বনিম্ন অবস্থানে রয়েছে আফগানিস্তান।

তালিকায় বাংলাদেশের পরই উত্তর কোরিয়ার অবস্থান। বাংলাদেশের ঠিক আগে ১০৭তম অবস্থানে রয়েছে সুদান, শ্রীলঙ্কা, লেবানন ও ইরান।

তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ার দেশ মালদ্বীপের অবস্থান ৬৬তম, ভারত ৯০তম, ভুটান ৯৬তম ও মিয়ানমার ১০২তম অবস্থানে রয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :