জেরুজালেম থেকে ফিলিস্তিনিদের উৎখাত পরিকল্পনা; হামাসের হুঁশিয়ারি

প্রকাশিত : ৩ মে ২০২১

ভোরের দর্পণ ডেস্ক:

অধিকৃত ফিলিস্তিনের পবিত্র জেরুজালেম আল-কুদস শহরের শেখ জাররাহ শরণার্থী শিবির থেকে ফিলিস্তিনি নাগরিকদের উচ্ছেদ করার বিরুদ্ধে ইসরায়েলকে হুঁশিয়ার করে দিয়েছে ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস।

রবিবার প্রকাশিত এক বিবৃতিতে হামাসের মুখপাত্র ফাউজি বারহুম বলেছেন, শেখ জাররাহ শরণার্থী শিবিরের লোকজনকে বহিষ্কার করার ফলে তাদের যে ক্ষয়ক্ষতি হবে তার দায়-দায়িত্ব সম্পূর্ণভাবে ইসরায়েলকে বহন করতে হবে।

জেরুজালেম শহরের এ শরণার্থী শিবির উচ্ছেদ করে দখলদার ইসরায়েল সেখানে অবৈধ ইহুদি বসতি স্থাপন করতে চায়। এ সম্পর্কে ফাউজি বারহুম বলেন, শেখ জাররাহ এলাকা থেকে গণভাবে ফিলিস্তিনি লোকজনকে বের করে দিয়ে তাদের ঘরবাড়ি দখল করার মধ্যদিয়ে প্রকৃতপক্ষে ইসরায়েল  জেরুজালেম শহরের মুসলিম পরিচয় মুছে দিতে চায়। তারা এই শহরে মুসলমানদের উপস্থিতির অবসান ঘটাতে চায়। 

এর আগে দখলদার ইসরায়েলের একটি আদালত নির্দেশ দিয়েছে যে, আগামী বৃহস্পতিবারের মধ্যে শেখ জাররাহ শরণার্থী শিবির থেকে ছয়টি পরিবারকে অবশ্যই উচ্ছেদ করতে হবে।

একই আদালত আরো নির্দেশ দিয়েছে যে, আগামী পহেলা আগস্টের মধ্যে শরণার্থী শিবির থেকে আরও সাতটি পরিবার উচ্ছেদ করতে হবে। আদালতের এ নির্দেশ অনুসারে সেখান থেকে মোট ৫৮ জন ফিলিস্তিনি নাগরিককে উচ্ছেদ করা হবে যার মধ্যে ১৭টি শিশু রয়েছে।

ফাউজি বারহুম বলেন, ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার কারণে ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে বিশেষ করে জেরুজালেম আল-কুদস শহরে দখলদারিত্ব বিস্তার ও নতুন বসতি নির্মাণ করতে তেল আবিব আগের চেয়ে বেশি উৎসাহী হয়ে উঠেছে। ইসরায়েলের এই অপতৎপরতা রুখে দেওয়ার জন্য তিনি ফিলিস্তিনি জনগণকে রাস্তায় নেমে নিয়মিত প্রতিবাদ অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান।

আপনার মতামত লিখুন :