বৃহস্পতিবার নীলক্ষেত অবরোধ করবে সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত : ১ জুন ২০২১
ফাইল ছবি

ভোরের দর্পণ ডেস্ক:

হল ও ক্যাম্পাস খুলে দেওয়ার দাবিতে আগামী বৃহস্পতিবার (৩ জুন) নীলক্ষেত অবরোধের ডাক দিয়েছে সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে এগারোটায় নীলক্ষেত মোড়ে সংক্ষিপ্ত মানববন্ধন করে এ কর্মসূচির ঘোষণা দেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

এর আগে গত ৩০ মে এক মানববন্ধন থেকে ক্যাম্পাস খোলার জন্য ১ জুন পর্যন্ত সময় বেধে দেন সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা। তবে আজ অবরোধ করার মতো পর্যাপ্ত শিক্ষার্থী উপস্থিত না হওয়ায় কর্মসূচি প্রত্যাহার করে আগামী বৃহস্পতিবার এই কর্মসূচি পালিত হবে বলে জানিয়েছেন তারা।

ইডেন কলেজের শিক্ষার্থী শাহিনুর সুমি বলেন, বৈরি আবহাওয়া অর্থাৎ বৃষ্টি এবং অনেক এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হওয়ায় শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে আসতে পারেনি। তাই কর্মসূচি প্রত্যাহার করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ঢাকায় ৪০ মিনিট বৃষ্টি হলে মিরপুর-নারায়ণগঞ্জ থেকে শিক্ষার্থীরা আসতে পারে না। এটি একটি সংকট। এই সংকটের দায় রাষ্ট্রের।

বাংলা কলেজের শিক্ষার্থী রবিউল হোসেন স্বপন বলেন, দেশে সবকিছু খোলা থাকলেও শুধু মাত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা হয়নি। অবিলম্বে শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসে ফিরিয়ে তাদের শিক্ষা জীবন ফিরিয়ে দিতে হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা থাকলে তারা পরিবারের হাল ধরতে পারতো। টিউশন করে বাড়িতে টাকা পাঠাতে পারতো। কিন্তু এখন এসব শিক্ষার্থীদের অবস্থা অনেক খারপ তাদের পরিবারের অবস্থা আরো খারাপ। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার দাবিতে আমাদের আরো বৃহত্তর আন্দোলন করতে হবে। আন্দোলনে সবাইকে অংশ গ্রহণ করার আহ্বান জানাচ্ছি।

কবি নজরুল কলেজের শিক্ষার্থী তামজিদ হোসেন বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কারণে আমার এক বন্ধুর টিওশনি নেই। তার বাবার হাঁপানির ওষুধ শেষ। সরকার কী তার বাবার হাঁপানির ওষুধ কিনে দিবে! শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের কারণে অনেকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে আত্মহত্যা করছে। এই আত্মহত্যার দায় রাষ্ট্রের। তাই এগুলো আত্মহত্যা না, রাষ্ট্রীয় হত্যাকাণ্ড।

মানববন্ধন শেষে শিক্ষার্থীরা নীলক্ষেত মোড় থেকে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে। মিছিলটি মোড় থেকে শুরু হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তি ও গণতন্ত্র তোরণ ঘুরে ফের নীলক্ষেত মোড়ে গিয়ে শেষ হয়।

আপনার মতামত লিখুন :