এরদোয়ান রুহানির ফোনালাপ, মধ্যপ্রাচ্যের রাজনীতিতে নতুন মোড়

প্রকাশিত : ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১

ভোরের দর্পণ ডেস্ক:

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন। তুরস্কের গণমাধ্যম আনাদুলু এজেন্সি জানায়, রোববার দুই নেতার মধ্যে টেলিফোনে কথা হয়। এ সময় এরদোয়ান বলেন, ‘আমি চাই ইরানের ওপর থেকে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা উঠে যাক।’ 

টেলিফোনে এরদোয়ান ইরানের প্রেসিডেন্টকে বলেন, ‘নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পরমাণু ইস্যুতে আলোচনা হবে, তেহরানের এমন শর্তারোপকে সম্ভাবনা হিসেবে দেখছে তুরস্ক। আমার বিশ্বাস ইরানের ওপর থেকে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হবে।’

এদিকে রুশ সংবাদ সংস্থা আরটি জানায়, কাসেম সোলাইমানিকে নির্মমভাবে হত্যার ঘটনায় সহমর্মিতা প্রকাশ করেন এরদোয়ান। তিনি সোলাইমানিকে শহিদ বলে উল্লেখ করেন। এ বিষয়ে ইরানি জনগণের ক্ষোভ ও আবেগ তিনি বোঝেন বলেও জানান এরদোয়ান। মধ্যপ্রাচ্যে বিদেশি শক্তির হস্তক্ষেপের বিরুদ্ধে তুরস্কের অবস্থান বলেও জানান এরদোগান।

ইরানের বিরুদ্ধে অন্যায় নিষেধাজ্ঞার কথা উল্লেখ করে প্রেসিডেন্ট রুহানি বলেন, তেহরান বারবার বলেছে– যুক্তরাষ্ট্র যদি এসব নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়, তা হলে ইরানও দ্রুত পরমাণু সমঝোতা বাস্তবায়নের ধারায় ফিরবে।

টেলিফোন কথোপকথনে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন, নিষেধাজ্ঞা কবলিত দেশগুলোর ঐক্যই হচ্ছে মার্কিন আধিপত্যবাদ ও তাদের অবৈধ পদক্ষেপ মোকাবিলার শ্রেষ্ঠ উপায়। এ সময় তিনি মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখে তুরস্কের প্রতি ইরানের পক্ষ থেকে অকুণ্ঠ সমর্থন ঘোষণা করেন। যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ইরানের সঙ্গে যৌথভাবে দৃঢ় অবস্থান নিতে তুরস্কের প্রেসিডেন্টকে আহ্বান জানান তিনি।

এছাড়া অর্থনীতি, পরিবহন, নিরাপত্তা ও অন্যান্য বিষয়ে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক জোরদারে দুই নেতার মধ্যে এসময় আলোচনা হয়। আঙ্কারা ও তেহরানের সম্পর্ক উন্নয়নে তুরস্ক অঙ্গীকারাবদ্ধ বলে জানিয়েছেন এরদোয়ান।

আপনার মতামত লিখুন :