মানবতাবিরোধী অপরাধ: শর্ত ভঙ্গ করায় সুনামগঞ্জের জোবায়ের মনিরের জামিন বাতিল

প্রকাশিত : ৯ আগস্ট ২০২০

সিলেট ব্যুরো : জামিনের শর্ত ভেঙে নৌবিহার করায় মানবতাবিরোধী মামলার আসামি সুনামগঞ্জ জেলার শাল্লা উপজেলার জোবায়ের মনিরের জামিন বাতিল করেছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। রোববার রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি মুহাম্মদ শাহিনুল ইসলামের নেতৃত্বাধীন ২ সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এ আদেশ দেন।

এর আগে অসুস্থতা দেখিয়ে আদালত থেকে জামিন নিয়ে নৌবিহার করায় তার জামিন বাতিল চেয়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে আবেদন করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুম। তিনি বলেন, মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে জামিন আবেদন করার পর আসামিকে সাতটি শর্তে জামিন দেওয়া হয়েছে। জামিনের অন্যতম শর্ত ছিল তিনি মুহাম্মদপুরে ছেলের বাসায় থাকবেন। আর কোনো সাক্ষী ও মামলা সংক্রান্ত বিষয়ে কাউকে প্রভাবিত করতে পারবেন না। এরকম সাতটি শর্ত দিয়ে তার জামিন মঞ্জুর করা হয়। কিন্তু তিনি জামিন নেওয়ার পর শর্ত ভঙ্গ করে সুনামগঞ্জে নৌবিহারে গিয়ে নৌকা দিয়ে সন্ত্রাসীদের সঙ্গে ঘুরে বেড়িয়েছেন। জানা গেছে, তিনি ঈদের আগের দিন গ্রামের বাড়ি শাল্লা উপজেলার দৌলতপুরে গিয়ে পশু কোরবানিতে অংশ নেন। পরে নিজস্ব লোকজন নিয়ে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ৩ আগস্ট ঢাকায় ফেরেন। ২০১৬ সালে ট্রাইব্যুনালে একাত্তরে গণহত্যা, নারী নির্যাতন, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের অভিযোগে জোবায়ের মনির, তার ভাই প্রদীপ মনির ও চাচা মুকিত মনিরসহ অপরাধে সস্পৃক্তদের বিরুদ্ধে চারটি অভিযোগ জমা দেওয়া হয়। ওই বছরের ২১ মার্চ অভিযোগের তদন্ত শুরু হয়।

শাল্লা উপজেলার পেরুয়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা রজনী দাসের দায়েরকরা মামলায় ২০১৮ সালের ২০ ডিসেম্বর জোবায়ের মনির, জাকির হোসেন, তোতা মিয়া টেইলার, সিদ্দিকুর রহমান, আব্দুল জলিল, আব্দুর রশিদসহ অভিযুক্ত ৬ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অভিযোগ দায়েরের পরই আমেরিকায় পালিয়ে যায় অভিযুক্ত মুকিত মনির। ২০১৯ সালের ১৭ জুন তদন্ত সংস্থা একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধে জোবায়ের মনিরসহ ১১ জন জড়িত বলে ট্রাইব্যুনালে অভিযোগ দাখিল করে। গত ফেব্রæয়ারিতে আদালতকে অসুস্থতার তথ্য দিয়ে জোবায়ের মনির জামিন মঞ্জুর করিয়ে নেয়।

আপনার মতামত লিখুন :