পীরগঞ্জে গৃহবধূর হাত ভেঙে দিলো সুদখোর!

প্রকাশিত : ২৬ অক্টোবর ২০২০
আহত গৃহবধূ

পীরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি:

রংপুরের পীরগঞ্জে সুদখোর পিতা-পুত্র সুদের টাকা না পেয়ে বাড়িতে হামলা করে জেলেখা বেগম (৫০) নামের এক গৃহবধূর হাত ভেঙে দিয়েছে। এ সময় ওই গৃহবধূর স্বামী ও তার অনার্স পড়–য়া মেয়েকেও নির্দয়ভাবে পেটানো হয়। আশংকাজনক অবস্থায় ওই গৃহবধূ ও তার মেয়েকে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। গত রোববার বিকেলে উপজেলার হাসানপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও আব্দুর রহমানের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মিঠিপুর ইউনিয়নের হাসানপুর গ্রামের সাজেদুর রহমান ও তার ছেলে মানিক মিয়া এলাকায় প্রতিষ্ঠিত সুদখোর ব্যবসায়ী।

তাদের কাছ থেকে একই গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে জুয়েল মিয়া ওই সুদখোর পিতা-পুত্রের কাছে প্রতিমাসে ১৬ হাজার টাকা সুদে ১ লাখ ১০ হাজার টাকা ঋণ নেয়। প্রতি মাসে কিস্তি দিয়ে ঋণের টাকা পরিশোধ করলেও এক মাসের সুদের ১৬ হাজার টাকা না পেয়ে গত রোববার বিকেলে আব্দুর রহমানের বাড়িতে হামলা চালায়।

এ সময় আব্দুর রহমানের স্ত্রী জেলেখা বাড়ির সামনে পড়শীদের সাথে কথা বলা অবস্থায় সুদখোর পিতা ও পুত্র জুলেখা বেগমকে নির্দয়ভাবে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে তার একটি হাত ভেঙে দেয়। মাকে বাঁচাতে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া মেয়ে এগিয়ে আসলে তাকেও লাঠি দিয়ে পেটায়। মারাত্মক আহত অবস্থায় মা ও মেয়েকে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

আব্দুর রহমান জানান, তার ছেলে মাসে ১৬ হাজার টাকা সুদে ওই সুদখোর পিতা-পুত্রের কাছ থেকে ১ লাখ ১০ হাজার টাকা নিয়েছিল। কয়েক মাস সুদ দেয়ার পর আসল টাকা পরিশোধ করা হলেও এক মাসের সুদের টাকার জন্য সুদখোর বাপ-বেটা আমার বাড়িতে এসে আমার স্ত্রী, বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া মেয়েকে প্রকাশ্য দিবালোকে নির্দয়ভাবে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করে। এতে স্ত্রীর বাম হাত ভেঙে গেছে, মেয়ের মাথাও ফাটিয়েছে। আমি এর বিচার চাই।

আপনার মতামত লিখুন :