চৌহালীতে কোরআন অবমাননায় ভন্ডপীর গ্রেফতার

প্রকাশিত : ১৪ অক্টোবর ২০২০

চৌহালী (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি :

সিরাজগঞ্জের চৌহালীতে পবিত্র কোরআন অবমাননার দায়ে নুরুল ইসলাম (৪৫) নামের এক কথিত ভন্ডপীরকে বুধবার সকালে তার নিজ বাড়ি থেকে স্থানীয়দের সহায়তায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় উপজেলা সদরে মুসুল্লিরা তার ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছেন।

 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, মঙ্গলবার রাতে বাঘুটিয়া ইউনিয়নের রেহাইপুখুরিয়া গ্রামের মৃত গোলাপ সিকদারের ছেলে কৃষক নুরুল ইসলাম তার নিজ শয়ন কক্ষে রাখা পবিত্র কোরআন শরীফের উপর মোবাইল ফোন চার্জ দিয়ে রাখে। বিষয়টি তার স্ত্রীর নজরে এলে কোরআন শরীফের উপর মোবাইল রাখতে নিষেধ করে। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে তীব্র বাকবিতন্ডা শুরুর এক পর্যায়ে ভন্ডপীর নুরুল কোরআন শরীফ বাড়ির পাশের কাঁদা মাটিতে ছুড়ে ফেলে দেয়। বাড়ির লোকজন ঘটনার প্রতিবাদ করলে সে মহান আল্লাহকে নিয়ে কটুক্তি করে এবং কোরআন শরীফের উপর লাথি মারে।

 

এ ঘটনা বুধবার সকালের দিকে জানাজানি হলে স্থানীয়রা তার বাড়ি ঘেড়াও করে গণপিটুনী দিয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে তাকে গ্রেফতার করে নিয়ে আসে। এদিকে অভিযুক্তের ফাঁসির দাবিতে বুধবার দুপুরে উপজেলা সদরে স্থানীয় আলেম উলামারা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে এলাকা প্রদক্ষিন করে। এসময় শিক্ষক আবদুল হাই ও চৌহালী সরকারী কলেজের ভিপি রবিউল মোল্লা, মুহতামিম হাফেজ মাওলানা বেলাল হোসেন, ইমাম নুরুল ইসলাম ও সমাজ সেবক সোলায়মান সিকদার সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

 

এ বিষয়ে চৌহালী উপজেলা জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মিজানুর রহমান ও সমাজ সেবক আবদুল হাকিম বলেন, কথিত ভন্ডপীর নুরুল কোরআন অবমানা করে নাস্তিকে রুপান্তর হয়েছে। তার সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসির দাবি করছি। এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মির্জা সেলিম জানান, নুরুল দীর্ঘ দিন ধরে এলাকায় নিজেকে পীর দাবি করে আসছে।কোরআন অবমাননার ঘটনার তার দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি দাবি করছি।

এ দিকে চৌহালী থানার ওসি মোল্লা মাসুদ পারভেজ জানান, নুরুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলা দিয়ে জেলহজতে প্রেরণ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :