নকলার সর্বত্রই ফাঁকা অঘোষিত লকডাউন

প্রকাশিত : ১৫ এপ্রিল ২০২০

করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে নকলায় অঘোষিত লকডাউন করে রেখেছে প্রশাসন। লকডাউন শুরু হওয়ার পর থেকেই চিরচেনা এই শহরের জনজীবনে বড় ধরনের পরিবর্তন দেখা দিয়েছে। উপজেলার সব খানেই বিরাজ করছে থমথমে ভাব। উপজেলার বাইরে থেকে কেউ যেন প্রবেশ করতে না পারে সেজন্য পাইস্কা বাইপাস মোড়, জালালপুর ম্যানেজার মার্কেট, হলচত্তর মোড়, উত্তর বাজার, গড়েরগাঁও চৌরাস্তার মোড়ে বসানো হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা বেষ্টনি। রাস্তা ঘাট, অফিস পাড়া, হাটবাজার, থানা, হাসপাতাল, প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের অফিস ভবন সব খানেই ফাঁকা। উপজেলা প্রশাসনের তৎপরতা স্বাস্থ্য বিভাগের নজরদারীতে হুম কোয়ারেন্টাইনে আছেন গণপদ্দী ইউনিয়নে ৬২জন, নকলা ইউনিয়নে ২৩জন, উরফা ইউনিয়নে ৬৫জন, গৌড়দ্বার ইউনিয়নে ২০জন, বানেশ^রদী ৬৫জন, পাঠাকাটা ৪২জন, টালকী ইউনিয়নে ১২৫জন, চরঅষ্ট্রধর ইউনিয়নে ২৫জন, চন্দ্রকোনা ইউনিয়নে ১৭০জন, পৌরসভায় ৫৬জন। উপজেলা স্বাস্থ্য প.প. কর্মকর্তা ডাক্তার মোঃ মজিবুর রহমান বলেছেন, এখন পর্যন্ত ২১ ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষা করে কারও করোনা পাওয়া যায় নি। ১৫এপ্রিল বুধবার উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের ১৪জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখার সময় উপজেলার স্বাস্থ্য প.প. কর্মকর্তা ডাক্তার মোঃ মজিবুর রহমান, চেয়ারম্যান রেজাউল হক হীরা, চেয়ারম্যান শওকত হোসেন খান মুকুল, গোলাম রাব্বানী, সাজু সাঈদ সিদ্দিকী, বদরুজ্জামান বদি, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদুর রহমানের নিকট থেকে প্রাপ্ত তথ্যে এ সংবাদ পাওয়া গেছে। ইউসুফ আলী মন্ডল, নকলা, শেরপুর  প্রতিনিধি। মোবা: ০১৮১৪৮৪১৩৭৮

আপনার মতামত লিখুন :