ঝিনাইগাতীতে করোনা মোকাবিলায় ইতালী প্রবাসীর সহায়তার হাত

প্রকাশিত : ১৩ মে ২০২০

শেরপুর প্রতিনিধি : শেরপুর জেলার সিমান্তবর্তী ঝিনাইগাতী উপজেলার নলকুড়া ইউনিয়নের সভ্রান্ত  মুসলিম পরিবারের মোহাম্মদ হযরত মুন্সীর বড় ছেলে মো: হাবিবুর রহমান দির্ঘ দিন থেকে জীবনের সাথে যুদ্ধ করে প্রবাসে জীবন যাপন শুরু করেন ইতালীতে বর্তমান স্ত্রী সন্তান সহ স্বপরিবারে বসবাস করছেন করোনা আগমনের আগেই সে তার জন্মভূমিতে এসে ঘুরে যান সে তার আত্বীয় স্বজনের সাথে সাক্ষাত করে তার জীবনের গল্প ইতালী দেশের ঐতিহ্য নিয়ে কথা বলেন

সারা বিশ্বে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় কোভিড১৯ এর প্রভাবে ইতালীতেও এক বিশাল ঝড় বয়ে গেছে  অনেকেই আক্রান্ত হয়ে তার চোখের সামনে জিবন দিতে হয়েছে তার বন্ধুদের কিন্ত মহান রাব্বুল আলামিন স্ব পরিবার সহ তাকে হেফাজত করেছে এই উপজেলায় নেই কোন শিল্প কারখানা দারিদ্রতার নিচে বসবাস করে অধিকাংশ জনসাধারণ

মৃত্যুকে মাথায় রেখে আবার এই ক্লান্তিকাল সময়ে মহামারীতে ঝিনাইগাতী উপজেলার মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়ায় উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের অসহায় মানুষের ব্যাপক কষ্ট হচ্ছে তা চিন্তা করে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে তার কষ্টের  অর্জিত ফসল আজ প্রিয় মাতৃভমিতে হাতছানি দিয়ে ডাকছে তার সিমান্তবর্তী ইউনিয়নে অসহায় মানুষের জন্যে  খাদ্যের উপহার সামগ্রী বিতরণের জন্যে দেশে থাকা বুন্ধ বান্ধব তার ছোট ভাই মারফত কয়েক দফা সুষ্ঠ ভাবে খাদ্য বিতরণ করেছেন সে প্রবাস থেকে খোঁজ খবর নিয়ে এলাকার অসহায় পরিবারের হাত বাড়িয়ে দিয়ে দৃষ্ঠান্ত স্থাপন করেছেন তার উদ্যোগকে এলাকার বিশিষ্ঠ নাগরিকরা সাধুবাদ জানিয়েছেন

ইতালী প্রবাসি হাবিবুর রহমানের সাথে মোবাইলে কথা হলে তিনি প্রতিনিধিকে জানান, আমি এই উপজেলার মানুষ আমি জানি আমার উপজেলার গৌরিপুর ইউনিয়নের জনগণ এই মহামরীতে ব্যাপক কষ্ট লাঘব করছে আমার কর্তব্য দায়িত্ব রয়েছে তাদের পাশে থাকা আমি সামান্য উপহার দিতে পেরে নিজেকে সার্থক মনে ককরছি আমি ইতালীতে পরিবার সহ থেকে যাব তবুও দেশের জন্যে মন কাঁদে অনেক কষ্ট করেছি আজ আল্লাহ পাক আপনাদের দোয়ায় দিয়েছে আমার সামর্থ অনুযায়ী সহযোগিতার হাত অব্যাহত থাকবে জানিয়ে সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন

আপনার মতামত লিখুন :