শেরপুরের ঝিনাইগাতী করোনার ছোবলে বাজার ইজারাদারের মাথায় হাত

প্রকাশিত : ২৭ এপ্রিল ২০২০

শেরপুর প্রতিনিধি : শেরপুর জেলার করোনার ছোবলে ঝিনাইগাতী উপজেলার সদর ঝিনাইগাতী বাজারটি বাজারটি এবার সরকারী বিধিমোতাবেক প্রতি বছরের ন্যায় বাংলা ১৪২৭ সালের জন্যে টেন্ডার আহবান করলে সব্বর্চ ডাককারী আহছানূল ইসলাম দুলাল কোটি ৪৪ লাখ টাকায় বাজারের নতুন ইজারাদার হিসাবে মোননিত হয় সরকারী ভ্যাট সহ যার মূল্য দাড়ায় কোটি প্রায় ৮০ লাখ টাকা উক্ত টাকা নিয়ম মাফিক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ব্যাংক একাউন্টে যথা সময়ে জমা দেন

ইজারাদার  হাওলাদ জমিজমা বিক্রি করে টাকা সংগ্রহ করেন ১লা বৈশাখ থেকে নতুন বাজারের গণনা শুরু হয়েছে কিন্তু মহামারি প্রাণঘাতি কোভিড১৯ করোনাভাইরাসের কারণে লন্ডভন্ড হয়ে যায় বাজারের চিত্র সরকার প্রধান থেকে ঘোষনা আসে লোকমসাগম এড়িয়ে চলা, দোকানপাঠ বন্ধ থাকা ,গরু মহিষ ছাগলের হাঁট না বসা সর্বশেষ জেলা প্রসাশক কর্তৃক লকডাউন ঘোষনা করায় মানুষের মাঝে স্থবিরতা দেখা দিয়ে সকল কাজর্কম থমকে যায়

সাপ্তাহিক বুধবার রবিবার বাজার থাকা সত্যেও করোনার গ্রাসে বাজারটি লোকশুণ্য হয়ে পড়েছে এখন পশু বাজার থেকে মোটা অংকের একটা অংশ বাজারের ইজারদার পেয়ে থাকে করোনার ছোবলের কারণে বঞ্চিত হয়ে নতুন ইজরাদারের মাথায় হাত পড়েছে ব্যাপারে সদর ইউপি চেয়ারম্যান মোফজ্বল হোসেন চাঁন বলেন করোনার জন্যে ইজারাদারের ক্ষতি হচ্ছে দেখা যাক কতদিন থাকে এই ভাইরাসের প্রভাব উর্ধতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্ঠিতে একটা ব্যবস্থা হতে পারে বলে জানান  

ছামিউল হক রনি জানায় বাজারের অবস্থা বিরাজ করলে ইজারাদার পথে বসে যাবে প্রতিদিন ৫০ হাজার টাকা সাপ্তাহিক লাখ করে ৩৬৫ দিনে আয় হলে তার টাকা উত্তোলন হবে এখন সরকারের হস্তক্ষেপ না করলে ব্যবসায়িক হিসাবে লোকসানের বুঝা মাথায় নিতে হবে

ব্যাপারে ইজারাদার আহছানূল ইসলাম দুলাল জানান বাজারের সমস্ত টাকা জমা দিয়েছি করোনার এমন অবস্থায় চিন্তিত হয়ে পড়েছি টাকাতো উঠবে না আমার ব্যাপক ক্ষতি হয়ে যাচ্ছে সরকারের আইনকে শ্রদ্ধা করে কোন হাঁট বসছে না আমার মতো সারাদেশে একই অবস্থা আমাদের প্রতি সরকার মানবিক কারণে তাকাবেন বলে আমাদের বিশ্বাস এর একটা বিহীত ব্যবস্থা হলে সমগ্র দেশের জেলা/উপজেলায় সরকারের সুনাম বয়ে আসবে সচেতন মহল মনে করেন করোনাভাইরাসের প্রভাবে বাজারের ইজারাদার ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হবে তাই সারাদেশের হাটবাজার সংশ্লিষ্ঠ উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নজরে নিয়ে বিষয়টি দেখবেন এমনি প্রত্যাশা সচেতন মহলের

আপনার মতামত লিখুন :