করোনা দুর্যোগে, পাইকগাছায় চিংড়ি অর্থনীতি বিপর্যয়ের মুখে

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০২০

আবুল হাশেম, পাইকগাছা (খুলনা): মহামারী করোনার ছোবলে খুলনার পাইকগাছার একমাত্র চিংড়ী অর্থনীতি বিপর্যয়ের মুখে। দুর্যোগকালে সারাদেশের সাথে দুরপাল্লার যোগাযোগ বিছিন্ন থাকায় সরবরাহে প্রতিবন্ধকতা ও অন্যদিকে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ডিপো ও মৎস্য কাটা লকডাউন করায় চরম বিপাকে ঘের মালিক ও এর সাথে সংশ্লিষ্টরা। শনিবার অনেকেরই ফেরি করে পথে ঘাটে কম মূল্যে মাছ বিক্রি করতে দেখা গেছে। ঘের মালিক ও ব্যবসায়ীরা বিকল্প ব্যবস্থায় প্রশাসনের কাছে মৎস্য সরবরাহের দাবী করেছেন। এদিকে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সংক্রামন রোধে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুলিয়া সুকায়না ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ আরাফাতুল জনস্বাস্থ্যোর কথা বিবেচনা করে কাটা মার্কেট ও ডিপো মার্কেট মালিকদের সতর্ক করে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এসব প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার ঘোষনা দিয়েছেন। ডিপো সমিতির সভাপতি জিন্নাত সানা জানিয়েছেন পৌরসভায় ৫৫/৬০টি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান (ডিপো) ঢাকা, চট্টগ্রাম সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে চিংড়ি সরবরাহ করে থাকে। কিন্তু চিংড়ি মৌসুমের শুরুতে করোনা ভাইরাস সংক্রমন ছড়িয়ে পড়ায় লোকসংগম এড়াতে প্রশাসন ডিপোগুলো বন্ধ করে দিলে বিপাকে পড়েছে ব্যবসায়ী ও ঘের মালিকরা। পাইকগাছা কাটা মালিক সমিতির সভাপতি জব্বর সরদার, বাঁকা কাটা সমিতির সভাপতি আরশাদ আলী বিশ্বাস জানান, জরুরী ভাবে পচনশীল দ্রব্য মাছ বিকল্প ভাবে সরবরাহ করতে না পারলে, এ অঞ্চলের অর্থনীতি মারাত্বক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হবার আশঙ্কা রয়েছে।
 

আপনার মতামত লিখুন :