পাইকগাছার গদাইপুর পাল পরিবারের মানবেতর জীবন-যাপন

প্রকাশিত : ১৭ জুন ২০২০

আবুল হাশেম, পাইকগাছা : পাইকগাছার গদাইপুর ইউনিয়নের করোনা ভাইরাসে ঘর বন্দি কর্মহীন অসহায় পালপাড়ার অধিবাসীরা মানবেতর জীবন যাপন করছে। সামান্য সরকারি সহযোগিতা পেলেও সংসার নির্বাহ করা দুরহ হয়ে পড়েছে। এমতাবস্থায় বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন তারা।

জানা যায়, হিতামপুরের পালপাড়ার ৫০ পরিবার মৃৎশিল্পের সাথে জড়িত।  হাঁড়ি, পাতিল, কলস তথা মাটির তৈরী জিনিসপত্র বিক্রি করে তারা জীবন-জীবিকা নির্বাহ করেন। বর্তমানে প্লাস্টিক, মেলামাইন ও স্টিলের যুগে মাটির তৈরী আসবাবপত্র প্রায়ই বিলুপ্তের পথে। বর্তমান ৫০টি পরিবারের মধ্যে ১৬টি পরিবার শুধুমাত্র গাছের চারা তৈরীর পাত্র ছাড়া তেমন কোন কাজ নেই বলে নরেন্দ্রনাথ পাল জানান।

মহামারী করোনা ভাইরাসের সময়ে তাদের মাটির তৈরী কোন কিছুই বিক্রি হচ্ছে না। ফলে তারা মানবেতর জীবন-যাপন করছে। ইতোমধ্যে সরকার ৭নং গদাইপুর ইউনিয়নে সাড়ে ৬ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দিয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে। সরকারি ও স্থানীয়ভাবে অনেকেই ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করলেও তা দিয়ে জীবকা নির্বাহ করা সম্ভব হচ্ছে না। এ পরিবারগুলোর দিকে কেউ কোন বিত্তশালীরা এগিয়ে আসেনি বলে বিধান পাল ও সুব্রত পাল জানান।

এ অবস্থায় সরেজমিনে দেখা যায়, ১১২ বছরের বৃদ্ধা বেহুলা পাল নিজ হাতে মাটির জিনিসপত্র তৈরী করছে এবং আমাদের এ প্রতিনিধিকে বলেন, আমাদের এই চরম দুর্দিনে কেউ খোঁজ-খবর নিচ্ছে না। তারা সমাজের বিত্তশালদের এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি সদস্য শেখ জাকির হোসেন লিটন বলেন, সরকারিভাবে যে সাহায্য সহযোগিতা পেয়েছি তা সমহারে আমার ওয়ার্ডে বন্ঠন করে দিয়েছে। এখনও কিছু পরিবার বাকী রয়েছে। যা পরিবর্তীতে দেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :