শরণখোলায় বনকর্মীকে আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ 

প্রকাশিত : ২৫ এপ্রিল ২০২০

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি : বাগেরহাটের শরনখোলায় পাওনা টাকা চাইতে যাওয়ায় মোতালেব শেখ (৫৫) নামের এক বনকর্মী নির্যাতনের শিকার হয়েছেন।ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকালে উপজেলার উত্তর সাউথখালী গ্রামে। স্থানীয়রা  মুমুর্ষ অবস্থায় ওই বনকর্মীকে উদ্ধার করে শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছেন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোঃ মোতালেব শেখ জানান, তিনি ওই দিন সকাল ৮টার দিকে পাওনা টাকা চাইতে প্রতিবেশি সরোয়ারের ফকিরের বাড়িতে যান। সরোয়ারের ছোট ভাই মোঃ কবির ফকির (৩৮) তাকে দেখে ক্ষিপ্ত হয়ে অশ্লীল ভাষায় গালাগালি করেন।

সময় তিনি প্রতিবাদ করলে কবির ফকির তার  ছেলে  মিলন ফকির (১৫) এবং স্থানীয় গ্রাম পুলিশ মোঃ সেলিম হাওলাদার (৪০) একজোট হয়ে তাকে লাঠি লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে প্রায় দুঘন্টা আটক রেখে শারীরিক নির্যাতন চালায়। ওই সময় কবিরের মা রোকেয়া বেগম (৬০), সরোয়ারের স্ত্রী আকলিমা বেগম (৩৫) মেয়ে কারিমা আকতার (১৬) মারপিটে বাঁধা দিলে তাদেরও পিটিয়ে আহত করেন বখাটে কবির। খবর পেয়ে তার পরিবারের সদস্য স্থানীয়রা নির্যাতনকারীদের কবল হতে মোতালেবকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভার্তি করেন।

ব্যাপারে কবির ফকিরের মুঠোফোনে জানতে চাইলে সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে তিনি ফোনটি কেটে দেন। তবে গ্রাম পুলিশ সেলিম হাওলাদার বলেন, মারধর করিনি বরং আমি ঘটনাস্থলে যাওয়ায় প্রানে রক্ষা পেয়েছেন ওই বনকর্মী। শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস কে আব্দুল্লাহ আল সাঈদ জানান, বনকর্মী নির্যাতনের বিষয়টি তিনি শুনেছেন। অভিযোগ পেলে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া  হবে

আপনার মতামত লিখুন :