যবিপ্রবিতে তিন জেলার আরও ১২ করোনা রোগী শনাক্ত

প্রকাশিত : ২৫ এপ্রিল ২০২০

যশোর প্রতিনিধি : যশোর বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (যবিপ্রবি) জিনোম সেন্টারে (ল্যাবে) ৯৫টি নমুনা পরীক্ষায় আরও ১২জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীকে শনাক্ত করা হয়েছে। সবচেয়ে বেশি যশোর জেলার ৯জন রয়েছে। বৃহস্পতি শুক্রবার পাঁচটি জেলার নুমনা পরীক্ষায় তিনটি জেলায় ১২জন করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। এদিন মাগুরা চুয়াডাঙ্গা জেলায় রোগী শনাক্ত হয়নি। নিয়ে যবিপ্রবি ল্যাবে ৩৭জন করোনা রোগী শনাক্ত হলো।

(২৫ এপ্রিল) শনিবার যবিপ্রবি জিনোম সেন্টারের সহযোগী পরিচালক অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর . ইকবাল কবীর জাহিদ জানান, যবিপ্রবি জিনোম সেন্টারে বৃহস্পতি শুক্রবার ৯৫টি নমুনা  পরীক্ষায় ১২ জন কোভিড১৯ পজিটিভ রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি যশোর জেলায় ৪১টি নমুনায় ৯জন রোগী, ঝিনাইদহ জেলায় ২০টি নমুনায় ২জন রোগী, নড়াইলে ২২টি নমুনায় একজন রোগী শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া মাগুরায় ১১টি নমুনা চুয়াডাঙ্গার ১টি নমুনা পরীক্ষায় নেগেটিভ এসেছে।

এর আগে যশোর বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবে বুধবার ৬ষ্ঠ দিনের নমুন পরীক্ষায় ১২ জন কোভিড১৯ পজিটিভ রোগী শনাক্ত হয়। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি চুয়াডাঙ্গা জেলায় ৬জন রোগী। এছাড়া যশোরে ২জন, কুষ্টিয়ায় ২জন, মেহেরপুরে ১জন মাগুরায় একজন রোগী শনাক্ত হয়েছিল। বুধবার জেলা থেকে ৮৬টি নমুনা পাঠানো হয়েছিল। এদের মধ্যে থেকে পরীক্ষার পর ওই রোগী শনাক্ত হয়েছে। 

আর মঙ্গলবার ৫ম দিনে যবিপ্রবি ল্যাবে ৬৫ নমুনা পরীক্ষায় ১৩ জন কোডিভ১৯ পজিটিভ রোগী শনাক্ত হয়। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ছিল নড়াইলে ৫জন। এদের মধ্যে ৪জন চিকিৎসক ছিলেন। এছাড়া যশোরে ৪জন, কুষ্টিয়ায় ২জন, মাগুরা মেহেরপুরে ১জন করে করোনা রোগী শনাক্ত হয়। তিনদিনে এখানে মোট ৩৭জন রোগী সনাক্ত হলো।

ফলে পর্যন্ত যশোরে ১৫ জন, চুয়াডাঙ্গা নড়াইলে জন করে, কুষ্টিয়ায় ৪জন, ঝিনাইদহে দুজন এবং মেহেরপুর মাগুরায় দুজন করে রোগী শনাক্ত হলো। যবিপ্রবিতে ৭টি জেলার নমুনা পরীক্ষা হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :