নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবিতে শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ

প্রকাশিত : ২২ নভেম্বর ২০২১

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

গোপালগঞ্জ শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীদের ওপর রোববার (২১ নভেম্বর) রাতে হামলা ও ক্যাম্পাস ভাংচুরের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ পালন করেছে মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী ও ইন্টার্নি চিকিৎসকবৃন্দ।

সোমবার (২২ নভেম্বর) দুপুরে গোপালগঞ্জ শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাসে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের ছাত্রীদের ইভটিজিং, শিক্ষার্থীদের ওপর অতর্কিত হামলা, কলেজ ক্যাম্পাসের বিভিন্ন ভবনের ব্যাপক ভাংচুরের প্রতিবাদ জানিয়ে এ ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবি জানান শিক্ষার্থী ও ইন্টার্নি চিকিৎসকগণ।

প্রসঙ্গত গত রোববার রাতে ইভটিজিংয়ের ঘটনায় শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদ জানালে এতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদের ওপর চড়াও হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষ দফায় দফায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। এ সময় গোপালগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মনিরুল ইসলাম, পুলিশ সদস্য ও শিক্ষার্থী সহ প্রায় ৫০ জন আহত হন। আহতদের মধ্যে গুরুতর ৫ জনকে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপিটালে ভর্তি করা হয়েছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এদিকে ঘটনাস্থলে গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. ইকবাল হোসেন, শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. জাকির হোসেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রাশেদুর রহমান, স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (সার্কেল-৫) মো. মনিরুজ্জামান মোল্যা, নির্বাহী প্রকৌশলী কেএম হাসানুউজ্জামান, শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের প্রকল্প পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) ও গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে সহকারী পরিচালক বা. অসিত কুমার মল্লিক, শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ও বিএমএ গোপালগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. হুমায়ূন কবির, সহকারী অধ্যাপক ও স্বাচিপ গোপালগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. আব্দুল্লাহ আল মামুন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. জাকির হোসেন বাদী হয়ে অজ্ঞাত দুই সহস্রাধিককে অভিযুক্ত করে গোপালগঞ্জ সদর থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানাগেছে।

আপনার মতামত লিখুন :