হংকং প্রবাসী পরিবারের নিকট চাঁদা দাবি করে কুপিয়ে আহত: প্রতিবাদে গোপালগঞ্জে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত : ২১ নভেম্বর ২০২১

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

হংকংয়ে স্বপরিবারে বসবাসরত গাজী কামাল নামে এক ব্যক্তির নিকট চাঁদা না পেয়ে তাকে নির্মমভাবে কুপিয়ে আহত করার প্রতিবাদে গোপালগঞ্জে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সংক্রান্তে হংকংয়ে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। পরে এ ঘটনায় আহতের স্বজনেরা দোষীদের বিচার চেয়ে রোববার (২১ নভেম্বর) সকালে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার উরফি ইউনিয়ন পরিষদের সামনে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত গাজী কামালের বড় ভাই গাজী অলিউর রহমান। লিখিত বক্তব্য পাঠ করে তিনি বলেন, হংকং প্রবাসী গাজী কামালের নিকট ২ লক্ষ ডলার চাঁদা চেয়ে না পেয়ে গত ২৮ অক্টোবর রাত আনুমানিক সাড়ে ১০ টায় হংকংয়ের প্রিন্সেসওয়াট সেভেন ইলেভেন শপের সামনে হত্যার উদ্দেশ্যে তাকে এলোপাতাড়িভাবে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মুন্সেফপাড়ার (২১৯/গ, চৌধুরী ভিলা) নওয়াব মিয়া চৌধুরীর ছেলে সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ আরিফ চৌধুরী ওরফে আল—মোমিন এবং সিলেটের গোলাপগঞ্জের মধ্যনগর গ্রামের মো: আকুল মিয়ার ছেলে শাওন আহমদ।

পরে মর্মান্তিক এ ঘটনার সংবাদটি বাংলাদেশের কয়েকটি অনলাইন পোর্টাল ও প্রিন্ট মিডিয়ায় প্রকাশিত হলে ওই সন্ত্রাসীরা পুনরায় গাজী কামালকে অপহরণ করার চেষ্টা চালায়। কিন্তু পুলিশি তৎপরতায় তা ব্যর্থ হয়। পরে সন্ত্রাসীরা কামালের ঘনিষ্ঠ বন্ধু সহ তাকে হত্যা করা এবং বাংলাদেশে বসবাসরত তাদের পরিবারের সদস্যদেরকে হুমকি দিচ্ছে।

দুঃখজনক এ ঘটনাটি ভিন্নদিকে প্রবাহিত করতে গাজী কামাল ও তার ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্থানীয় একটি অনলাইন পোর্টালে বিভিন্ন ধরনের কুৎসা ও অপপ্রচার রটানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছে। শাওন আহমদ ও আরিফ চৌধুরী খুবই দুর্ধর্ষ। বাংলাদেশ পুলিশের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তাদের সাথে তাদের গভীর সখ্যতা রয়েছে বলে জানাগেছে। ওই পুলিশ কর্মকর্তাদের সহায়তায় মিথ্যা মামলা দিয়ে হংকং প্রবাসীদের বাংলাদেশী স্বজনদেরকে পুলিশি হয়রানি করার হুমকিও দিচ্ছে তারা।

আরিফ চৌধুরী ও শাওন আহমদ মাদক, হুন্ডি ও মানব পাচার সহ অবৈধ ব্যবসার সাথে জড়িত বলে জনশ্রুতি রয়েছে। শাওন আহমদ গত ১৭ নভেম্বর হংকং থেকে বাংলাদেশে ফিরেছে বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানাগেছে। এছাড়াও ব্রাক্ষণবাড়িয়ার নবীনগর থানার চিলি কুটি গ্রামের হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান আরিফ চৌধুরী ও সিলেটের গোলাপগঞ্জের মধ্যনগর গ্রামের হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান শাওন আহমদ রাতারাতি কিভাবে কোটিপতি বনে গিয়েছে তা দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত রহস্য উদঘাটন করে দোষীদের আইনের আওতায় আনার আহ্বান জানান তিনি।

সেই সাথে হংকংয়ে বসবাসরত গাজী কামাল ও তার ঘনিষ্ঠ বন্ধু সহ বাংলাদেশে অবস্থানরত তাদের স্বজনদের সার্বিক নিরাপত্তা চেয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আহত গাজী কামালের আত্মীয়-স্বজন, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ জেলায় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :