পবিত্র কোরআন অবমাননাসহ ইসলাম ও সংবিধানবিরোধী বক্তব্যের প্রতিবাদে গোপালগঞ্জে উলামা পরিষদের সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত : ১৯ অক্টোবর ২০২১

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লার নানুয়া দীঘির পাড় হিন্দু মন্দিরে পবিত্র কোরআন অবমাননা ও তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানের ইসলাম ও সংবিধান বিরোধী বক্তব্যের প্রতিবাদে গোপালগঞ্জে সংবাদ সম্মেলন করেছেন উলামা পরিষদ।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টায় গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষ “স্বচ্ছতা’য় এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন গোপালগঞ্জ সদরের উলামা পরিষদ।

সংবাদ সম্মেলনে উলামা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মুফতি শুয়াইব ইবরাহীম লিখিত বক্তব্য পাঠ করে বলেন, গত ১৩ অক্টোবর কুমিল্লার নানুয়া দীঘির পাড় হিন্দু মন্দির থেকে পবিত্র কোরআন শরীফ উদ্ধার করেছে পুলিশ। কে বা কারা এ ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে তা এখনো উদঘাটিত হয়নি। এহেন কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা ও ঘটনায় জড়িত প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের করে দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের দাবি জানান গোপালগঞ্জ উলামা পরিষদ।

 

এসময় তিনি আরো বলেন, ইসলাম ও ইসলামের নবী, পবিত্র ধর্মগ্রন্থ আল-কুরআন, পবিত্র ঘর কাবা শরীফ ইত্যাদি বিষয় নিয়ে উপহাস ও অবমাননা করা এক শ্রেণির লোকের ঔদ্ধত্যপূর্ণ অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। দেশের ৯০ ভাগ মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ এবং ধর্মীয় ভাবে এটি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। এদেশের স্বল্পসখ্যক হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান আবহমানকাল থেকে শান্তিতে বসবাস করে আসছে এবং নিরাপত্তার সাথে তারা তাদের ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান পালন করে যাচ্ছে। অনেক ক্ষেত্রে সাধারণ মুসলিমরাও তাদের নিরাপত্তা পাহারাদারি করে থাকে। কিন্তু ধারাবাহিকভাবে মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানার ফলে বর্তমানে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট হতে চলেছে। এছাড়া অতিসম্প্রতি তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান এমপি’র ইসলাম ও সংবিধান বিরোধী বক্তব্যের প্রতিবাদে তাঁর পদত্যাগের দাবিও জানান তিনি।

এ সময় স্বাস্থ্যবিধি মেনে উলামা পরিষদের সভাপতি মাওলানা নাসির আহমদ, সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা ফখরুল আলম, সহ-সভাপতি মুফতি হাফিজুর রহমান, মাওলানা আবুল কালাম, মাওলানা জামাল উদ্দিন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ফারুক হুসাইন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা অহিদুজ্জামান, মাওলানা শরীফ আনিসুর রহমান, দপ্তর সম্পাদক মুফতি আহমাদুল্লাহ মিশকাত, অর্থ সম্পাদক মাওলানা ওমর ফারুক, মাওলানা হাফিজুল ইসলাম শাহীন, প্রচার সম্পাদক মাওলানা রবিউল ইসলাম, সদস্য মুফতি গাউসুর রহমান, মাওলানা আব্দুস সামাদ, মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পরে সংবাদ সম্মেলন শেষে উলামা পরিষদের নেতৃবৃন্দ গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানার নিকট একটি স্মারকলিপি পেশ করেন। এরপর দেশের শান্তি ও কল্যাণ কামনায় বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করেন।

আপনার মতামত লিখুন :