গাজীপুর মির্জাপুর বাজারে গড়ে উঠেছে বাঁশের হাট

প্রকাশিত : ২৬ অক্টোবর ২০২১

সাইফুল ইসলাম শুভ, গাজীপুর সদর প্রতিনিধি:

শত শত বছরের ঐতিহ্য বহন করে আছে মির্জাপুর বাজারের বাঁশের হাট। এ বাঁশ এলাকার চাহিদা মিটিয়েও বহু দিন ধরে দেশের বিভিন্ন স্থানে বাজারজাত হচ্ছে। গাজীপুর সদর উপজেলায় মির্জাপুর বাজার বাঁশের জন্য বিখ্যাত। সপ্তাহের মঙ্গলবার ও বুধবার শালদহ ও তুরাক নদীর চরে বেশ জায়গা জুড়ে বসে বাঁশের হাট।

হাটবার ছাড়াও সোমবার , মঙ্গলবারেও এখানে বাঁশের চক বসে। বাঁশ বিক্রেতাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, সোমবার, মঙ্গলবারে এলাকার গৃহস্থরা নিজের কাজের জন্য বাঁশ কিনে থাকেন। আর হাট বারের দিন দুরদুরান্ত থেকে কারবারীরা বাঁশ কিনে নিয়ে বিভিন্ন হাটে বাজারে ব্যবসা করছেন। মির্জাপুর দক্ষিণপাড়া গ্রামের আলী আহমদ জানান, বর্ষাকালে বাজারে কোটি টাকার বাঁশের হাট বসে।

বাজারের বাঁশের চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানেও রপ্তানি হচ্ছে। বর্ষাকালে শালদহ ও তুরাক নদীতে যখন পানিতে ভরপুর থাকে তখন বাঁশের পাইকারী ব্যবসায়ীরা বড় বড় বাঁশের চালী তৈরী করে নদীতে ভাসিয়ে দেশের বিভিন্ন ভাটি অঞ্চলে নিয়ে যায়।তবে কিছু কিছু ব্যাপারিরা সড়ক পথেও বাঁশ আনা-নেওয়া করেন। বাঁশ দিয়ে ঘর তৈরি, পানের বরজ, সবজি চাষের মাচা, মাছ ধরার সরঞ্জাম, বাঁশের তৈরি নানা ধরনের আসবাব থেকে শুরু করে আধুনিক ডেকোরেটরদের বিভিন্ন কাজে বাঁশের ব্যবহার হয়।

জানা যায়, বাজারে পার্শ্ববর্তী পিরুজালী, মির্জাপুর, ভাওয়ালগড়, বাড়িয়া এলাকায় বাঁশের বাগান আছে। এখানকার বাঁশের জনপ্রিয়তার কথা সকলেরই জানা। বাগানে বেশ কয়েক প্রজাতির বাঁশ উৎপাদন হয়। বাঁকল, বউরা, মুলি, কনকই বাঁশ উল্লেখযোগ্য। প্রতিটি বাঁশ ৪০ টাকা থেকে ২০০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়। বাঁশ ব্যবসায়ী আতিকুল ইসলাম বলেন, আমরা দীর্ঘ দিন যাবত এখান থেকে বাঁশ কিনে নিয়ে বিভিন্ন জেলায় বিক্রি করি। এতে আমাদের ভালো লাভ হয়।

আপনার মতামত লিখুন :