সিরাজদিখানে বিয়ের প্রলোভনে  অন্ধ যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশিত : ৬ মে ২০২০

সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি : মুন্সীগঞ্জ সিরাজদিখানে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ২৫ বছর বয়সি এক যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে ওই যুবতী উপজেলার কোলা ইউনিয়নের নন্দনকোনা গ্রামের বাসিন্দা  গত প্রায় ছয় মাস পূর্ব হইতে ধর্ষিতার সাথে  প্রেমের সম্পর্ক গড়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অন্ধ ওই মেয়ের ইচ্ছার বিরুদ্ধে একাধিক বার জোর পূর্বক ধর্ষণ করে

 সে মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান উপজেলার বীরতারা ইউনিয়নের নিমতলী গ্রামের মৃত মোহাব্বত আলী দেওয়ানের(বোয়ালদীরছেলে মোঃ আতাউর রহমান(৫৫) ঘটনায় গতকাল মঙ্গলবার বিকা ৪টায় ধর্ষিতার বাবা বাদি হয়ে মোঃ আতাউর রহমান(৫৫) সহযোগী চম্পাবেগমকে আসামি করে সিরাজদিখান থানায় ধর্ষণ মামলার অভিযোগ দায়ের করেছেন তবে পুলিশ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অভিযুক্ত আতাউর রামান চম্পা বেগমকে গ্রেফতার করতে পারেনি

সূত্রে জানা গেছে, উত্তর নন্দনকোনা গ্রামের মোঃ লাল মিয়ার স্ত্রী চম্পার সাথে ধর্ষক মোঃ আতাউর রহমানের আত্মীয়তার সম্পর্ক রয়েছে   চম্পা বেগমের সহযোগীতায় ধর্ষিতা  অন্ধ যুবতীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়িয়া বিয়ের প্রলোভন দেখাইয়া ফুসলাইয়া চম্পার বসত ঘরে নিয়া অন্ধ যুবতী মেয়ের ইচ্ছার বিরুদ্ধে একাধিক বার জোর পূর্বক ধর্ষণ করে  ধর্ষিতার মা বলেন সর্বশেষ গত  ২০ এপ্রিল রাতে আবারোও জোর পূর্বক ধর্ষণ করে

গত সোমবার আবারো ধর্ষনের সহযোগী চম্পাবেগম আমার অন্ধ মেয়েকে সকাল সারে ৯টায় আমার বাড়ি থেকে ডেকে আনতে গেলে  পরবর্তীতে উল্লেখিত ঘটনার সম্পূর্ন বিষয়টি আমার মেয়ে আমাদেরকে জানালে আমি বিষয়টি আমার স্বামী স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদেরকে জানালে তারা আমাকে থানায় অভিযোগ মামলা করতে বলেন

সিরাজদিখান  থানার অফিসার্স ইনচার্জ মোঃ ফরিদ উদ্দিন জানান, উপজেলার কোলা ইউনিয়নের নন্দনকোনা গ্রামের অন্ধ মেয়েটির সঙ্গে একই এলাকার পঞ্চাশউদ্ধো এক ব্যক্তির প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে অভিযুক্ত ব্যক্তি বিয়ের প্রলোভনে দীর্ঘদিন ধরে ওই অন্ধ যুবতীর সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক স্থাপন করে আসছিল মেয়েটি বাড়িতে গত সোমবার তার বাবা মাকে বিষয়টি জানালে তার বাবা বাদি হয়ে দুই জনকে অভিযুক্ত করে লিখিত থানায় অভিযোগ করেন অভিযোগটি নারী শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলার প্রকৃক্রিয়াধিন রয়েছে

আপনার মতামত লিখুন :