কাপাসিয়ায় বেসরকারি হাসপাতালে করোনা রোগীদের চিকিৎসা শুরু

প্রকাশিত : ২৪ এপ্রিল ২০২০

কাপাসিয়া(গাজীপুর)প্রতিনিধি : কাপাসিয়ায় উপজেলা প্রশাসন স্বাস্থ্য বিভাগের ব্যবস্থাপনায় বেসরকারিমডিউল কমিউনিটি হাসপাতালেকরোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবা শুরু হয়েছে বুধবার সন্ধ্যায় মালিক পক্ষ উপজেলা প্রশাসনের কাছে হাসপাতালটির দায়িত্ব হস্তান্তর করেছে এবং বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত জন রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং উপজেলার অন্যান্য আক্রান্তদের পর্যায়ক্রমে এখানে নিয়ে আসা হচ্ছে

জানা যায়, সম্প্রতি কাপাসিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তাসহ ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্য সহকারী, টেকনেশিয়ান বিভিন্ন পদে কর্মরত মোট ৩১ জন স্টাফ করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবা সীমিত করা হয়েছে কাপাসিয়ায় ১৯ এপ্রিল পর্যন্ত মোট ৭০ জনের মাঝে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয় এবং একজন রোগী মারা যায় আক্রান্তদের দুইজনকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে এবং জনকে সৈয়দা জোহরা তাজউদ্দীন নার্সিং ইন্সটিটিউটে, ১৬ জনকে ছোঁয়া এগ্রো প্রোডাক্টস কারখানায় অবশিষ্ট সকলকে নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে

এতে করে তাদের নিবিড় পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে সমন্বিত চিকিৎসা সেবা প্রদান সম্ভব হচ্ছিলনা এবং অনেকেই আইসোলেশনের নিয়ম কানুন স্বাস্থ্যবিধি পুরোপুরি মানছিলেন না তাছাড়া আক্রান্তরা নিজ বাড়িতে অবস্থান করায় পাড়া প্রতিবেশিসহ জনমনে বিরুপ প্রতিক্রিয়া হচ্ছিল বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিয়ে কাপাসিয়ার সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমির দিক নির্দেশনায় কাপাসিয়া উপজেলা প্রশাসন স্বাস্থ্য বিভাগমডিউল কমিউনিটি হাসপাতালকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য বেছে নেয়

কাপাসিয়ার কৃতি সন্তান খ্যাতনামা চিকিৎসক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের শিশু সার্জারি বিভাগের প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. মোঃ রুহুল আমীন জানান, উপজেলা সদর থকে প্রায় ১০ কি.মি. দূরে রায়েদ দরগা বাজারের পূর্বপাশে হাসপাতালটি নির্মাণ কাজসহ যাবতীয় প্রস্তুতি শেষে উদ্বোধনের অপেক্ষায় ছিল তিনি বলেন, দেশের এই ক্রান্তিকালে তার হাসপাতালটি করোনায় আক্রান্তদের চিকিৎসায় ব্যবহৃত হবে এটা তার জন্য অনেক সৌভাগ্যের বিষয় মহৎ কাজে তার হাসপাতালকে বেছে নেওয়ায় তিনি সিমিন হোসেন রিমি এমপি, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোটে মোঃ আমানত হোসেন খান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাঃ ইসমত আরা সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ আব্দুর রহিম জানান, সিমিন হোসেন রিমি এমপির দিক নির্দেশনায় অত্যাধুনিক হাসপাতালটিতে চিকিৎসা কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে তিনি সব সময় রোগীদের খোঁজ খবর রাখছেন সরকারি ব্যবস্থাপনায় এক জন মেডিকেল অফিসার সার্বক্ষণিক তদারকি করবেন তিনি রোগীদের খোঁজ খবর নিয়ে সময়োপযোগী পরামর্শ দিবেন আর তাদের খাবারসহ আনুষঙ্গিক খরচ সিমিন হোসেন রিমি এমপি বহন করবেন   

আপনার মতামত লিখুন :