গাজীপুরে করোনা সংক্রামন বৃদ্ধির ঝুঁকি রোধে শিল্প পুলিশ তৎপর

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল ২০২০

মঞ্জুর হোসেন মিলন, গাজীপুরঃ  বকেয়া বেতন ভাতার দাবীতে শ্রমিক অসন্তোষকে কেন্দ্র করে গাজীপুরে প্রতিনিয়ত বাড়ছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি। এই ঝুঁকি রোধে আন্দোলনরত শ্রমিকদের সামাজিক দূরত্ব নীতি নিশ্চিত করার অনুররোধ জানানো হয়েছে গাজীপুর শিল্প পুলিশের পক্ষ থেকে। বুধবার পোশাক শিল্পসহ বিভিন্ন কারখানার শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সঙ্গে  এক বৈঠকে সংক্রামক সুরক্ষা নীতি মেনে শ্রমিকদের যৌক্তিক দাবী আদয়ের নানা কৌশল নিয়ে  গাজীপুর শিল্প পুলিশের পক্ষ থেকে নানা নির্দেশনা প্রদান করা হয়।  

কালিয়াকৈর উপজেলার সফিপুর এলাকার লিডা ফ্যাশন কারখানায় বুধবার দুপুরে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন গাজীপুর শিল্প পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুশান্ত সরকার। শিল্প পুলিশের সহকারি পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় স্বাধীন বাংলা গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের কালিয়াকৈর অঞ্চলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম দেওয়ান, ইউনাইটেড ওয়ার্কার্স ফেডারেশনের কালিয়াকৈর অঞ্চলের সভাপতি জাহিদ হাসান ও কোনাবাড়ি অঞ্চলের আগুন শেখ, জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক জোটের কালিয়াকৈর অঞ্চলের সাধারণ সম্পাদক নূর হোসেন ও বাংলাদেশ গার্মেন্টস ওয়াকার্স ফেডারেশনের সভাপতি আমজাদ হোসেনসহ কালিয়াকৈর, কোনাবাড়ি ও কাশিমপুর শিল্প এলাকার বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠণের নেতৃবৃন্দ অংশ নেন। এসময় শিল্প পুলিশের কাশিমপুর জোন এর ইন্সপেক্টর আব্দুল জলিল, কোনাবাড়ি জোন এর ইন্সপেক্টর অপূর্ব হাসান ও কালিয়াকৈর জোন এর ইন্সপেক্টর রেজাউল করিমসহ পুলিশের বিভিন্ন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। 

শিল্প পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুশান্ত সরকার জানান, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ঘোষিত লকডাউন উপেক্ষা করে গত কিছুদিন ধরে শ্রমিকরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ করে আসছে। বেতন ভাতা পরিশোধ ও শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ করাসহ বিভিন্ন দাবীতে আন্দোলনকালে শ্রমিকরা কিছু মহলের উস্কানীতে রাস্তায় নামছে।

বেতন ভাতাসহ ন্যায্য পাওনা পরিশোধের দাবীতে শ্রমিকদের আন্দোলন যৌক্তিক। কিন্তু প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস সংক্রমণের বর্তমান পরিস্থিতিতে সামাজিক দূরত্বসহ ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধের জন্য শ্রমিকরা কোন নিয়ম কানুন মানছে না আন্দোলনকালে। এতে প্রতিনিয়ত করোনা সংক্রমণের ঝুকি মারাত্মক আকারে বাড়ছে। 

তিরি বলেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমণের এ ঝুঁকি এড়ানোর লক্ষ্যে শ্রমিক ও শিল্প এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রাখতে গাজীপুরের শিল্প পুলিশ ভিন্ন কৌশল নিয়ে কাজ শুরু করেছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে শ্রমিকদেরকে সামাজিক দূরত্বসহ প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধের নিয়মকানুন মেনে শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করতে হবে। নতুবা এ ভাইরাস সংক্রমিত হয়ে মহামারীতে রূপ নিবে, যা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে না।

এজন্য অন্ততঃ করোনা পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠা পর্যন্ত কোন মহলের ষড়যন্ত্র বা উস্কানিতে সাড়া না দিয়ে রাস্তায় বের না হয়ে শ্রমিকদের শান্ত থেকে তাদের পাওনাদি আদায়ের জন্য পুলিশের সহযোগিতা নিতে বৈঠকে শ্রমিক প্রতিনিধিদের পরামর্শ দেওয়া হয়। এসময় শ্রমিক নেতৃবৃন্দ পুলিশের পরামর্শ অনুযায়ী সাধারণ শ্রমিকদের শান্ত রাখার জন্য কাজ করার আশ্বাস দেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরো জানান, আন্দোলনকালে শ্রমিকরা যদি রাস্তায় না নামে তাহলে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি কিছুটা হলেও কমবে। এ লক্ষ্য নিয়েই গাজীপুরের শিল্প পুলিশ কাজ শুরু করেছে। ইতোমধ্যে চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় এধরণের একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। গাজীপুরের সব এলাকায় অঞ্চল ভিত্তিক শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সঙ্গে এধরণের বৈঠক পর্যায়ক্রমে অনুষ্ঠিত হবে। 

 

আপনার মতামত লিখুন :