গফরগাঁওয়ে লকডাউনে থাকা ৬০টি পরিবারের পাশে পৌর মেয়র

প্রকাশিত : ১৩ এপ্রিল ২০২০

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ)প্রতিনিধি
ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে চার দিন অতিবাহিত হওয়ার পরেও করোনা শনাক্তকৃত  রোগীর বাড়িসহ লকডাউনকৃত আশপাশে ২৩ টি বাড়ির ৬০টি পরিবারের খোঁজ নেয়নি উপজেলা প্রশাসন। খাদ্য সংকটে পড়ে যাওয়া লকডাউন কৃত পরিবার গুলোর মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন পৌর মেয়র এসএম ইকবাল হোসেন সুমন।

গতকাল রাতে বীর মুক্তিযোদ্ধা বদরুল আলম সড়কের লকডাউনে থাকা পরিবার গুলোর মাঝে এ খাদ্যপণ্য বিতরণ করা হয়।
জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) সন্ধ্যায় গফরগাঁও পৌর এলাকায় করোনা রোগী সনাক্ত হয়। ওই দিন রাত ১১ টার দিকে উপজেলা প্রশাসন পৌর এলাকার বদরুল আলম সড়কের ২৩ টি বাড়ী লকডাউন করে দেয়। 

এতে ২৩টি বাড়ির ৬০ টি পরিবার বিপাকে পড়ে যায়। তাদের ছিল না কোনো পূর্ব প্রস্তুতি। ঘরে ছিল না পর্যাপ্ত বাজার সামগ্রী। ৭২ ঘন্টা অতিক্রম করার পরেও  উপজেলা প্রশাসন থেকে কোন সাড়া পায়নি পরিবার গুলো। শিশুরা খাবারের কষ্ট ভোগ করতে থাকে। অসুস্থ রোগীরা পায়নি কোন ঔষধ। সবাই আতঙ্কে, কেউ ঘর থেকে বের হয়নি। গৃহবন্দি মানুষগুলোর জন্য জাতীয় সংসদ সদস্য ফাহমী গোলন্দাজ বাবেলের নির্দেশে পৌর মেয়র এসএম ইকবাল হোসেন সুমন খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন।

প্রতিটি পরিবারের জন্য চাউল ১০ কেজি, ডাল ১ কেজি, সয়াবিন তেল ২ লিটার, সরিষা তেল ২৫০ গ্রাম, ২ কেজি পেঁয়াজ, সাবান ১টি, কাপড় কাচার সাবান ১টি,  রসুন হাফ কেজি, আলু ২ কেজি, কাঁচা মরিচ আধা কেজি, চিনি ১ কেজি, মুড়ি ১ কেজি, চিড়া ১ কেজি, চা পাতা ১ প্যাকেট, হলুদ গুড়া ১০০ গ্রাম, মরিচ গুঁড়ো ১০০ গ্রাম, দুনিয়া ১০০ গ্রাম, লবণ ১ কেজি, মোমবাতি ২টি, গ্যাস ম্যাচ ১টি, পেপসোডেন্ট পেস্ট ১টি, নাপা ট্যাবলেট ১ পাতা, গ্যাস্ট্রিকের ট্যাবলেট ১ পাতা, খাবার স্যালাইন ৩ পিস, শিশুদের জন্য দুধ ১ প্যাকেট পৌঁছে দেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বাংলো লাগোয়া এ বাড়িগুলোর খোঁজ নেয়নি তিনি। অপর বাসিন্দা ও উপজেলা প্রজন্ম লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরিদুল আলম সজীব জানান, মেয়র আসবেন বিশ্বাস করতে পারিনি। আমরা লকডাউনবাসী উনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানোর ভাষা আমরা খুঁজে পাচ্ছিনা। 

পৌর মেয়র এসএম ইকবাল হোসেন সুমন জানান, দুর্দিনে তিনি এলাকাবাসীর পাশে দাঁড়িয়েছেন ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল এমপির নির্দেশে। জরুরী প্রয়োজনে পৌরসভায় হটলাইন নাম্বার দেওয়া হয়েছে এবং আমার ব্যক্তিগত মোবাইলে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে লকডাউনে থাকা সকল পরিবারকে।

আপনার মতামত লিখুন :