নন্দীগ্রামে আ’লীগ নেতার গুদাম থেকে ১৬৮ বস্তা চাল উদ্ধার, গ্রেপ্তার দুই

প্রকাশিত : ১২ এপ্রিল ২০২০

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়া নন্দীগ্রামে হতদরিদ্রদের ১০ টাকা কেজি দরের চাল কালোবাজারে ক্রয় করে মজুত করার দায়ে আওয়ামী লীগ নেতার গুদাম থেকে ১৬৮ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়েছে। এসব অভিযোগে দল থেকে তাকে সাময়িক ভাবে বহিস্কারের করা হয়েছে।
শনিবার (১১এপ্রিল) রাত ১১টায় র‌্যাব-১২ বগুড়া স্পেশাল কোম্পানির সদস্যরা অভিযান চালিয়ে চাল উদ্ধারসহ দুইজনকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- নন্দীগ্রাম উপজেলার শিমলা বাজারের মৃত মনসুর রহমানের ছেলে ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমান এবং তার সহযোগী তারাটিয়া গ্রামের মৃত কাজেম উদ্দিনের ছেলে ও নন্দীগ্রাম সদর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আনছার আলী।
স্থানীয়রা জানায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমান দু’বছর আগে খাদ্য অধিদপ্তরের ডিলার ছিলেন। তার ডিলারশিপ মিলন সরদার নামে এক ব্যক্তির কাছে হস্তান্তর করেন। খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির বিপুল পরিমাণ চাল মজুত করার খবর পেয়ে শনিবার রাতে উপজেলার শিমলা গ্রামে আনিছুর রহমানের বাড়িতে অভিযান চালায় র‌্যাব। বাড়িতে ৫৮ বস্তা ও তার গোডাউনে তল্লাশি চালিয়ে আরও ১১০ বস্তা চাল উদ্ধার করে। পরে র‌্যাব সদস্যরা আনিছুর রহমান ও তার সহযোগী আনছার আলীকে গ্রেপ্তার করে। র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানান- খাদ্য বিভাগের ডিলার মিলন সরদারের নামে বরাদ্দকৃত চাল কালোবাজারে ক্রয় করে মজুত করেছেন তারা। র‌্যাব-১২ বগুড়া বিশেষ ক্যাম্পের ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার রওশন আলী জানান, আটক দুইজনসহ ডিলারের নামে মামলা করা হয়েছে।
জানতে চাইলে বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মজিবর রহমান মজনু বলেন, তার বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ উঠায় তাকে সংশোধন হওয়ার জন্য সর্তক করে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তারপরেও তিনি বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িত থাকায় তাকে দল থেকে সাময়িক বহিস্কার করা হয়েছে।
 

আপনার মতামত লিখুন :