ক্ষেতলালের রাহেলা বেওয়া এখন পায়খানার সেপ্টি ট্যাংকির উপরে থাকে

প্রকাশিত : ১৭ জুন ২০২০

ক্ষেতলাল (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি: শুনতে খুব মর্মান্তিক লাগছে। বয়স ৮৩ বছর। নাম রাহেলা বেওয়া। দুই কূলে কেউ নাই তার। স্বামী মারা গেছে ৩০ বছর আগে। স্বামীর নাম মাক্কেছ আলী। জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার বড়তারা ইউনিয়নের জামুহালী গ্রামের মোশারফ হোসেনের সেপ্টি ট্যাংকির উপরে দুই পাশে টিন দিয়া ঘেরা অবস্থায় থাকেন এই অসহায় ভূমিহীন মহিলা। স্বামীর বিষয় সম্পত্তি কিছু ছিলনা। 
জানাগেছে, তার এক মেয়ে । তার বিয়েও হয়েছে ভূমিহীন পরিবারে তাই মায়ের খবর নিতে পারে না। রাহেলাকে কোনো কথা জিজ্ঞেস করলে হাউমাও করে কেঁদে ওঠে বলেন, একটা ঘর দরকার। 
থাকার জন্য এক টুকরো জায়গা দেওয়া মোশারফ হোসেন জানান, রাহেলার স্বামী মারা যাবার পর বিভিন্ন স্থানে ভিক্ষা ভাংগন করে দির্ঘ্য দিন কাটান। এখন আর চলাফেরা তেমন করতে পারে না। উপায় অন্ত নাদেখে আমি তাকে থাকার জন্য জায়গা দিয়েছি। তার দুর সম্পর্কের এক ভাতিজি রেশমা আছে সে মাঝে মধ্যেই খাবার দেয়। 
খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরাফাত রহমান জামুহালি গ্রামে গিয়ে রাহেলাকে নগদ ৭শ টাকা ও একটি ঘর তৈরি করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে আসেন।
 

আপনার মতামত লিখুন :