গ্যাসের চুলা বিস্ফোরণে দগ্ধ স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু

প্রকাশিত : ৩০ মার্চ ২০২০

গ্যাসের চুলা বিস্ফোরণে দগ্ধ স্বামী নির্মল চন্দ্র সরকার (৪৫) ও তার স্ত্রী চায়না চন্দ্র সরকার (৩৮) ঘটনার চারদিনের মাথায় রোববার নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের মেলাবর বৈষ্যপাড়া গ্রামের নিজবাড়িতে মারা গেছেন।

তাদের একমাত্র ছেলে নিপু চন্দ্র সরকারকে (১৩) রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান ফজলার রহমান জানান, ওই পরিবার গাজীপুরের কাশিমপুর ইউসুফ মার্কেটের পাশে একটি টিনসেড বাড়িতে ভাড়া থাকতো। চায়না একটি গার্মেন্টসে চাকরি করতো। তার স্বামী ইউনুফ মার্কেটে দর্জির কাজ করতো। আর তাদের ছেলে সপ্তম শ্রেণির ছাত্র।

ঘটনার দিন ২৬ মার্চ বৃহস্পতিবার ভোরে ৬টায় চায়না রান্নার জন্য গ্যাস লাইটার জ্বালানোর সময় চুলা বিস্ফোরণ হলে স্বামী-স্ত্রী ও ছেলে দগ্ধ হয়েছিল। সেখানকার লোকজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করে। কিন্তু সেখান থেকে তাদের ২৭ মার্চ শুক্রবার পাঠিয়ে দেয়া হয়েছিল নীলফামারীর গ্রামের বাড়িতে। একটি মাইক্রোবাস তাদের গ্রামে রেখে চলে যায়।

এ অবস্থায় রোববার ভোর সাড়ে ৩টায় মারা যায় স্ত্রী চায়না ও দুপুর ১টায় মারা যায় স্বামী নির্মল। চোখের সামনে বাবা-মা এর মৃত্যু হওয়ায় দগ্ধ সন্তান নিপুর অবস্থা খারাপের দিকে গেলে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানান ইউপি চেয়ারম্যান।

তিনি বলেন, এলাকাবাসীর সহায়তায় পুলিশকে অবগত করে স্বামী-স্ত্রীর সৎকারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :