সীতাকুণ্ডে শিপইয়ার্ডে সন্ত্রাসী হামলায় ৪ ব্যবসায়ী আহত, ৭ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযাগ

প্রকাশিত : ৪ মে ২০২১

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি :

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে শিপ ব্রেকিং ইয়ার্ডে স্ক্র্যাপ জাহাজের ব্যবসাকে কেদ্র করে স্থানীয় এক মেম্বার বাহিনীর হামলায় চার ব্যবসায়ী আহত হয়েছেন বলে অভিযাগ উঠেছে। সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার দক্ষিণ শীতলপুর তেতুলতলা নামকস্থানে এ ঘটনা ঘটে। উক্ত  ঘটনায় ৭জনকে আসামী করে থানায় একটি অভিযাগ দেওয়া হয়েছে। তবে স্থানীয় ইউপি সদস্য ইয়াকুবের দাবি তার কোন বাহিনী নাই, হামলায় আহতরা ইয়ার্ডে চাঁদাবাজির চেষ্টা করছিলাে। আমি এলাকার একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে তা প্রতিহত করেছি।
প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়  সূত্রে জানা যায়, সাগর উপকূলে অবস্থিত আরব শিপ ব্রেকিং ইয়ার্ডের স্ক্র্যাপ জাহাজের পুরাতন মােটর টেন্ডারের মাধ্যমে ১’শ ৫২ টাকা কেজি দরে ক্রয় করছিলাে টেন স্টার সিন্ডিকেট নামে একটি প্রতিষ্ঠান। টেন্ডারের শর্তানুসারে দুই লাখ টাকা অগ্রিম দেওয়া হয় ইয়ার্ড মালিককে। করোনা মহামারী ও চলমান লকডাউনের কারণে ক্রয়কৃত মালের বাজার মূল্য কমে যাওয়ায় তারা ইয়ার্ড মালিককে কেজি প্রতি কিছু ছাড় দিতে অনুরোধ করেন। কিন্তু ইয়ার্ড মালিক তাদের অনুরােধ না রেখে ২৭ টাকা কমে অপর এক ব্যবসায়ীর কাছে মাল বিক্রি করে দেয়। এতে পূর্ব ব্যবসায়ীরা এর প্রতিবাদ জানান।
সোমবার সন্ধ্যায় প্রতিবাদ জানানাে শেষে বেরিয়ে আসার সময় স্থানীয়  মেম্বার ইয়াকুবের নেতৃত্বে একদল সস্ত্রাসী টেন স্টার সিন্ডিকটের সদস্য ব্যবসায়ী নুর মােহাম্মদসহ অন্যান্যদের উপর হামলা চালায়। এতে জখম হন নুর মােহাম্মদ, সাহাব উদ্দিন, রুবেল ও নাজমুল হাসান। তাদের মধ্যে তিনজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেওয়া হলেও মুমুর্ষবস্থায় নুর মােহাম্মদকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে ওখানে আইসিও খালি না থাকায় পরবর্তী বেসরকারি একটি হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে
। আহতদের মধ্যে ব্যবসায়ী সাহাব উদ্দিন বলেন, ইয়ার্ড মালিক রুবেল ও তার ভাই সােহেলকে আমরা ক্রয়কৃত মালের বর্তমান অবস্থার কথা বিবেচনা করে কিছু টাকা কমাত অনুরাধ করেছিলাম। কিন্তু তারা তা না করে আমাদের অগ্রিম দেওয়া টাকা ফেরৎ না দিয়ে মালামালগুলাে মেম্বার ইয়াকুব বাহিনীর মনােনীত এক ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করে দেন। আমরা ইয়ার্ডে গিয়ে এর প্রতিবাদ জানিয়েছি। ইয়ার্ড থেকে বেরিয়ে আসার সময় মেম্বার ইয়াকুব ও তার সহযাগীরা আমাদের উপর এলােপাতাড়ি হামলা চালায়। এতে নুর মােহাম্মদসহ আমরা চারজন আহত হই। নুর মােহাম্মদর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলেও জানান তিনি।
তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় সাতজনকে আসামী করে মঙ্গলবার  থানায় একটি অভিযাগ দেওয়া হয়েছে। সীতাকুণ্ড মডল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত শেষে আইনানুগ ব্যবস্থা  নেওয়া হবে।
স্থানীয় মেম্বার ইয়াকুব বলেন, তাদের কােন বাহিনী নাই। ইয়ার্ডে ওরা চাঁদাবাজি করতে গিয়ছিলাে, আমি তাতে বাঁধা দেওয়ায় আমার সহযাগীদের সাথে তাদের ধস্তাধস্তি হয়। এতে তাদের অভ্যান্তরিন কারাে হাতে তারা আহত হতে পারে বলে জানান।
আরব শীপ ইয়ার্ডের মালিক মােহাম্মদ রুবেল বলেন, ওরা (আহত ব্যবসায়ীরা) ইয়ার্ডের বাইরে গাড়ি আটকিয়ে বিক্রিত মালের ৫০ পারসন কমিশন ছেয়েছিলাে। এতে স্থানীয় ইয়াকুব মেম্বার বাঁধা দিলে তাদের সাথে মারামারি হয় বলে শুনছি। এ ঘটনায় একজন হাসপাতালের আইসিও তে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানান তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :