সীতাকুণ্ডে আর্থিক সংকটে অভিমানে যুবকের আত্নহত্যা

প্রকাশিত : ১৩ মে ২০২০

সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি: আকদ করে নতুন বউকে নিজ ঘরে তুলে আনার আগেই সেচ্ছায় জীবনের মায়া ত্যাগ করে পরাপরে চলে গেলেন শহিদুল ইসলাম (২৭)। অন্যদিকে বউ সেজে শশুড়বাড়ি যাওয়ার আগেই বিধাবা হলেন হবু বধু। ঘটনাটি ঘটেছে সীতাকুণ্ডে।

সীতাকুণ্ড মডেল থানার এসআই কায়েমুল ইসলামের নেতৃত্ব পুলিশ আজ বুধবার (১৩ মে) সকালে উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের ৩নং গুলিয়াখালী এলাকার নিজ ঘর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। বিষয়টি নিশ্চিত করে মডেল থানার (ইন্টেলিজেন) সুমন বনিক বলেন, গুলিয়াখালী এলাকায় নিজ ঘর থেকে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছি। ময়নাতদন্ত শেষে জানা যাবে বিস্তারিত।

জানা যায়, শহিদুল ইসলাম গভীর রাতে কোন এক সময় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। সে মুরাদপুর গুলিয়াখালি এলাকার রুহুল আমিনের পুত্র। এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল আমিন শফিক জানান, গত ৬ মাস আগে বিয়ে করে সে। কিন্তু এখনো বউকে ঘরে তুলে আনতে পারেনি। তার অন্য ভাই ওমানে থাকে।

দেশে লকডাউনের ফলে বর্তমানে বেকার অবস্থায় দিন যাপন করছিল। কয়েকদিন আগে বিদেশে অবস্থান করা দুই ভাইয়ের কাছে ঈদ উপলক্ষে সে টাকা চাই, তার ভাইয়েরা বলেছিল তারাও সেদেশে লকডাউনের কারনে সমস্যায় আছে। ভাইদের কাছে টাকা চেয়ে না পাওয়ায় ক্ষোভ, অভিমানে গত রাতের কোন একসময় সে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করে।

আপনার মতামত লিখুন :