চট্টগ্রাম করোনার ভয়াবহ ছোবল, একদিনে ৬৫ জন আক্রান্ত, মৃত্যু ১

প্রকাশিত : ১২ মে ২০২০

চট্টগ্রাম ব্যাুরো : চট্টগ্রামে করোনার ভয়াবহ ছোবল পড়েছে। চট্টগ্রামের করোনা পরীক্ষার তিন ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ৮০ জনের শরীরে করোনার অস্তিত্ব মিলেছে। তিনটি ল্যাবে মোট ৩৮৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করে চট্টগ্রাম জেলা ও বাইরের জেলায় সর্বমোট ৮০টি পজেটিভ আসে।

এর মধ্যে চট্টগ্রাম শহর ও জেলায় ৬৫ জন এবং চট্টগ্রামের বাহিরের জেলায় ১৬ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। চট্টগ্রামের ১ম ল্যাব ফৌজদারহাটস্থ বিআইটিআইডিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৩৪টি নমুনা পরীক্ষা করে চট্টগ্রামে ৩২ জন এবং নোয়াখালী জেলার ৮ জনের শরীরে করোনার অস্তিত্ব মিলেছে।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয়ে (সিভাসু) ৮৩ টি নমুনা পরীক্ষা করে চট্টগ্রামে ১৮ ফেনী জেলার ১ এবং নোয়াখালী জেলার ৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৫৬ টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে চট্টগ্রাম জেলার ১২ টি নমুনা পরীক্ষা করে লোহাগাড়া উপজেলার আমিরাবাদে একজনের করোনা শনাক্ত হয়।

সোমবার (১১ মে) রাতে এ তথ্য নিশ্চিত করেন চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা: সেখ ফজলে রাব্বি।তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে ৩৮৩টি নমুুুুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এরমধ্যে চট্টগ্রামে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ৬৫ জন। চট্টগ্রামের মোট আক্রান্ত বেড়ে ৩৩৩ জন। এর মধ্যে চট্টগ্রাম নগরে ৪১ জন, জেলায় ২৪ জন এবং ফেনী ১ নোয়াখালী জেলায় ৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

নগরীতে আক্রান্তরা হলেন- গ্রীনভিউ সোসাইটি ১, কর্নেলহাট ১, নোয়াপাড়া পাহাড়তলী ১, বাঁচা মিয়া রোড ১, পশ্চিম বাঘঘোনা লালখান বাজার ১, নয়াবাজার মৌসুমি ১, আকবরশাহ ১, চকবাজার ১, পশ্চিম নাসিরাবাদ ১, পাঁচলাইশ ১, ফিল্ড হাসপাতাল ১, দামপাড়া পুলিশ লাইন ১, নন্দন কানন ১, ছোটপুল (আগ্রাবাদ) ১, আগ্রাবাদ ২, সিএমসিএইচ ১, কাজীর দেউরি ১, লালদিঘির পাড় ১, কদমতলী ২, হালিশহর ২, ফিরিঙ্গিবাজার ১, পতেঙ্গা ১, টেরীবাজার ১, এয়ারপোর্ট রোড ১, পশ্চিম গলি চকবাজার ১, রাহাত্তারপুল ২, বিএমএ (BMA) ২, হাজারী গলি ২, বন্দরটিলা (ইপিজেড) ১, বিএনএস (পতেঙ্গা) ১, বায়েজিদ ১, বেপারীপাড়া ১, ডিসি অফিস (ডবলমুরিং) ১, সাকেরপুল ১ এবং ফ্রিপোর্ট বন্দর ১ জন।চট্টগ্রাম জেলায় আক্রান্তরা হলেন- পটিয়া উপজেলায় ১২ জন তার মধ্যে পৌরসভায় ২, কাগজীপাড়া ১, কমলমুন্সীরহাট ৯ জন সাতকানিয়া ৫ জন, রাঙ্গুনিয়া ২ জন এবং সীতাকুণ্ড ২ জন।

এদিকে ১১ মে সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৬৫ বছর বয়সী করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি চট্টগ্রামের কর্ণফুলি উপজেলার চরপাথরঘাটা ইছানগর গ্রামের বাসিন্দা। নাম আমেনা বেগম (৬৫)। এনিয়ে চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে ২০ জন মারা গেছেন। আজ নতুন ২ জনসহ এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৬৭ জন।

আপনার মতামত লিখুন :