ক্রমশঃ আতংকের নগরী হয়ে ওঠছে কুমিল্লার  দেবিদ্বার উপজেলা

প্রকাশিত : ৭ মে ২০২০

দেবিদ্বার ( কুমিল্লা)  প্রতিনিধি : কুমিল্লা জেলার মধ্যে দেবিদ্বার উপজেলা ক্রমশই যেন আতংকের নগরী আর ভয়াবহ অবস্থার দিকে ধাবিত হচ্ছে। বাদ যায়নি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থানা,এমনকি উপজেলা পরিষদের কর্মচারী সাধারণ মানুষ। 

এ পর্যন্ত করোনায় পজেটিভ সনাক্ত হয়ে আক্রান্ত হয়েছেন ৩১ জন এর মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন  ০৩ জন আর চিকিৎসারত ২৮ জন। বিশেষ করে উপজেলা সদরটি বর্তমানে একটি করোনাক্রান্তদের অভয়ারণ্যে পরিনত হচ্ছে প্রতিনিয়ত। যদিও উপজেলাটিকে ইতিমধ্যেই  হটস্পট হিসাবে ঘোষণা দিয়েছে প্রশাসন,কিন্তু সঠিকভাবে প্রশাসনের তদারকি নিয়ে প্রশ্ন ওঠেছে ইতিমধ্যেই।

হটস্পট ঘোষণার পরের দুইদিন সরকার দলীয় ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্যদের সার্বিক সহায়তায় উপজেলা সদরে বেশ কড়াকড়ি ভাবেই লকডাউন পালিত হয়,কিন্তু এর পর হতে আবার যেই সেই অবস্থায় অবাধে চলছে সিএনজি অটোরিকশা। আর যার ফলে নিউমার্কেটের সকাল থেকে যেন স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসে আর বেশ কিছু দোকানের অর্ধ শাটার খুলে দোকানদারি করাতে দেখা যায়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাকিব হাসান সারাদেশে ১০ মে'র পরে দোকানপাট খুলার সরকারী সিদ্ধান্তের বাইরে হটস্পট দেবিদ্বারে দোকান না খুলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে উপজেলা সদরে কিছুটা মানতে দেখা গেলেও গ্রামাঞ্চলে ইহার বালাই নেই। গতকাল ধামতি,মাশিকাড়া এলাকায় ঘুরে দেখা যায় ঈদের কেনাকাটা করতে মানুষের ভীড় লক্ষনীয় ভাবে বেড়েছে দোকানপাট খুলা।

দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা  আহমেদ কবির সাহেব প্রদত্ত আজকের আপডেট থেকে জানা যায়, দেবিদ্বারে আজ মোট ৯ জন পজিটিভ।  গত ৪ তারিখে প্রেরিত ৪০ জনের নমুনার মধ্যে ৩ জনের পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। পজিটিভ ৩ জনের মধ্যে ২ জন দেবিদ্বার পৌর এলাকায় বসবাসরত স্বামী স্ত্রী এবং ১ জন দেবিদ্বার থানায় কর্মরত পুলিশ সদস্য।

গত পরশু প্রেরিত ২১ জনের নমুনার মধ্যে ৬ জনের পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে। পজিটিভ ৬ জনের মধ্যে  ২ জন বরকামতা গ্রামের, ১ জন ভৈষেরকুট গ্রামের, ১ জন গুনাইঘর উত্তরের, ১ জন চাপানগরের ও ১ জন দেবিদ্বার পৌর এলাকার বাসিন্দা। আজকে নতুন করে দেবিদ্বার থেকে আরও ২০ জনের সংগৃহীত নমুনা পাঠানো  হয়েছে। গতকাল পর্যন্ত পাঠানো ১৮৮ জনের নমুনার মধ্যে ১৩৫ টিতে নেগেটিভ ১০৪, পজিটিভ ৩১ ( মৃত ৩, জীবিত ২৮)। পজিটিভ ১ জন দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন আছে, ১ জন ঢাকার পথে, বাকী পজিটিভ ২৬ জন নিজেদের বাড়িতে হোম আইসোলেশনে আছে।

এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে দেবিদ্বারে জেলা সদরের জোরদার মনিটরিং সহ উপজেলা প্রশাসনের কঠোর তদারকি এখনই প্রয়োজন, নচেৎ কুমিল্লা জেলার মধ্যে দেবিদ্বারে সবচাইতে ভয়ংকর পরিস্থিতি দেখা এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।

আপনার মতামত লিখুন :