হাটহাজারীতে ভেজাল ঘি ও অতিরিক্ত দামে আদা বিক্রির দায়ে জরিমানা

প্রকাশিত : ১ মে ২০২০

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি: হাটহাজারীতে অব্যাহত রয়েছে প্রশাসনের বাজার মনিটরিং কার্যত্রম। আজ শুক্রবার (১লা মে) হাটহাজারী উপজেলার মদুনাঘাট এবং নজুমিয়া হাটে সকাল ১১ টা হতে দুপুর ১টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মাদ রুহুল আমিন।

এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে পৃথক ৭টি মামলায় ৭ দোকানিকে মোট ৪৭,০০০ টাকা জরিমানা করা হয়। জানা যায়, চলতি বছরের ডিসেম্বর মাসের উৎপাদনের তারিখ (৩০/১২/২০২০) দিয়ে বাঘাবাড়ির ঘি নামে এক ধরনের ভেজাল ঘি বাজারজাতকরণ করে আসছিল একটি চক্র। আজ মদুনাঘাটের তিনটি মুদি দোকানে এমন ভেজাল ঘি এর সন্ধান পান ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এসময় উক্ত তিন দোকানিকে মোট ২৫,০০০ টাকা জরিমানা করা হয় এবং ডালডা ফ্লেভার আর হলুদ রং দিয়ে বানানো প্রায় ২ হাজার লিটার ভেজাল ঘি ধ্বংস করা হয়। উল্লেখ্য গত বছর হাটহাজারীতে এরকম ভেজাল ঘি এর ১৮টি কারখানা ধ্বংস করেছিল উপজেলা প্রশাসন।

অন্যদিকে নজুমিয়া হাটে মূল্য তালিকায় ১৬০ টাকা আদার দাম লেখা থাকলেও দোকানির দাবি আদা বিক্রি করছেন ১৪০ টাকা করে। কিন্তু ঐ মুহুর্তে দোকান অবস্থানরত ক্রেতার দাবি তিনি আদা কিনেছেন ৩২০ টাকা করে। এ সময় আদা ক্রয়ের ভাউচারও দেখাতে পারেন নি দোকানদার। ক্রয় মূল্যের সাথে বিক্রয়মূল্যের ব্যাপক অসামঞ্জস্যতা তথা অতিরিক্ত দামে আদা বিক্রির দায়ে ৪ দোকানিকে মোট ২২,০০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

এ ব্যাপারে হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ রুহুল আমিন সাংবাদিকদের জানান, কেউ যাতে সিন্ডিকেট করে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য দ্রব্যের বাজারমূল্য অস্থিতিশীল করতে না পারে সে ব্যাপারে প্রশাসন সজাগ রয়েছে। নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ এবং ভেজাল রোধে প্রশাসনের চলমান বাজার মনিটরিং কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

আপনার মতামত লিখুন :