ঝালকাঠিতে ধান কেটে দিলেন ডিসি, এসপি এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা

প্রকাশিত : ১২ মে ২০২০

ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার ষাটপাকিয়া গ্রামের বতর্মানে মহামারি করোনায় শ্রমিক সংকট বিপাকে পরা কৃষকের ৫ একর জমির ধান কাটার মধ্যেদিয়ে জেলার বোরোধান কাটার কর্মসূচি শুরু হয়েছে।

জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা মঙ্গলবার সকালে নলছিটি উপজেলার ষাটপাকিয়া গ্রামে কৃষি বিভাগের সহযোগিতায় কাচি দিয়ে ধান কেটে কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন। পরে কমবাইন্ড হারবেস্টার মেশিন দিয়ে ধান কেটে বাড়িতে পৌঁছে দেয়।

ঝালকাঠি জেলার নলছিটি থানার ষাটপাকিয়া গ্রামের মাঠ দিয়ে হাঁটা দিলেই চোখে পরবে সোনালী রঙে ছেয়ে আছে ধান ক্ষেত, আর সেই ক্ষেতে আজ কাঁচি চালিয়েছেন জেলার উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এবং কৃষকেরা। দলবেঁধে ধান কাটতে গিয়ে মহা-আনন্দে কেউ কেউ গান গাচ্ছেন, কেউ বা খোশগল্প করছেন।

এমনই উৎসবের মধ্যে দিয়ে ঝালকাঠি জেলার বিভিন্ন থানা অঞ্চলে বোরো মৌসুমের ধান কাটা চলছে। পাকা ধানের সোনালী দানা কৃষকের স্বপ্নপূরণে উঁকি দিচ্ছে। অপরদিকে আর ধান মাড়াই বাছাই ও সংরক্ষণের কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়ছে কৃষাণীরা।

অদ্যকার ১২/০৫/২০২০, মঙ্গলবারয কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, নলছিটি কর্তৃক আয়োজিত বোরো ধান কর্তন অনুষ্ঠানে  জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ জোহর আলী, জেলা পুলিশ সুপার জনাবা ফাতিহা ইয়াসমিন, সহ জেলা পুলিশের অন্যান্য উর্দ্ধতন অফিসারবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এ কাজে সহযোগিতা করেন জেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের পরিচালক ফজলুল হক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার  (সদর সার্কেল) এম এম মাহমুদ হাসান, কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ-পরিচালক খাইরুল ইসলাম, প্রকল্প মনিটরিং কর্মকর্তা তাজুল ইসলাম, নলছিটি উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা ইসরাত জাহান লিলি ও ভৈরব পাশা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন আহমেদ ধান কেটে দেওয়ায় খুবই খুসি স্থানীয় কৃষকরা।

আপনার মতামত লিখুন :