বিএনপিকে নিয়ে এত দুঃস্বপ্ন দেখেন কেন, কাদেরকে ফখরুল

প্রকাশিত : ৫ ডিসেম্বর ২০২১
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। পুরোনো ছবি

ভোরের দর্পণ ডেস্ক:

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, তিনি বিএনপির ভুল ছাড়া আর কিছুই দেখতে পান না। সারাক্ষণ শুধু দুঃস্বপ্ন দেখতে থাকেন। অথচ আওয়ামী লীগ সবসময় বলে- বিএনপি কোথাও নেই। যদি তা-ই হয়, তাহলে বিএনপিকে নিয়ে এত দুঃস্বপ্ন দেখেন কেন?

আজ রোববার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং বিদেশে নিয়ে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দলের সমাবেশে অংশ নিয়ে এ কথা বলেন মির্জা ফখরুল।

বাংলাদেশের গণতন্ত্র, স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষায় আপসহীন ভূমিকা রাখায় দেশের মানুষ খালেদা জিয়ার ‍মুক্তি চায় উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়াকে বন্দী করে দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব বন্দী করা হয়েছে, গণতন্ত্রকেই বন্দী করা হয়েছে। আর তাকে হত্যার ষড়যন্ত্রের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের অস্তিত্বকেই বিলুপ্ত করার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।

বিএনপি চেয়ারপারসনের সাজা ও কারাবরণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত উল্লেখ করে ফখরুল আরও বলেন, খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে সম্পূর্ণ মিথ্যা মামলায়। তার বড় উদাহরণ- নিম্ন আদালতে তার পাঁচ বছরের সাজা হলেও উচ্চ আদালতে তা বাড়িয়ে ১০ বছর করা হয়। এতেই বোঝা যায়- সরকার নিজ স্বার্থে রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলো কীভাবে ব্যবহার করছে।

এ সময় সরকারের উন্নয়ন প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব বলেন, উন্নয়ন কাদের হচ্ছে? সাধারণ মানুষের কোনো উন্নয়ন হচ্ছে না। সেজন্য দেশের মানুষ পরিবর্তন চায়। বিএনপিকে ক্ষমতায় আনতে হবে তা বলছি না, এই সরকারকে সরাতে হবে। সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনাদের মন্ত্রীরা যে ভাষায় কথা বলেন, কোনো সুস্থ-সভ্য মানুষ ওই ভাষায় কথা বলতে পারেন না।

সমাবেশে শ্রমিকদলের সভাপতি আনোয়ার হোসাইনের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য দেন  বিএনপির মহানগর উত্তরের আহ্বায়ক আমানউল্লাহ আমান, দক্ষিণের আহ্বায়ক আব্দুস সালাম, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল, শ্রমিক দলের নাজিম উদ্দিন, হুমায়ুন কবির খান, ফিরোজ-উজ-জামান মামুন, আবুল খায়ের খাজা, মোস্তাফিজুর রহমান মজুমদার, সালাহ উদ্দিন সরকার, আবুল কালাম আজাদ, সুমন খান, মিয়া মিজানুর রহমান, রফিকুল ইসলাম, কাজী আমির খসরু, হারুন অর রশীদ প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :