ওবায়দুল কাদের বর্তমানের ‘গুপী গাইন’ : রিজভী

প্রকাশিত : ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সম্পর্কে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সত্যজিৎ রায়ের গুপী গাইনের মতো বর্তমানে বাংলাদেশেও একজন আছেন, যিনি শুধু মিথ্যার গান গেয়ে যান। তিনি হলেন ওবায়দুল কাদের। 

তিনি বলেন, হঠাৎ করে ওবায়দুল কাদের এমন এমন মিথ্যা কথা বলেন, মনে হয় তিনি বাংলাদেশের বিবেক নির্দেশিত ব্যক্তি। অথচ তিনি যে অকপটে মিথ্যা কথা বলছেন, তা বুঝতে পারেন না।

শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লা‌বের সাম‌নে বাংলা‌দেশ ইয়ুথ ফোরা‌ম আয়োজিত জিয়াউর রহমান, খা‌লেদা জিয়া ও তা‌রেক রহমানের বিরু‌দ্ধে মিথ‌্যাচার, অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র বন্ধের দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধ‌নে এসব কথা ব‌লেন রিজভী।

‘বিএনপির আন্দোলনের হাঁকডাক মূলত আন্দোলন-বিলাস মাত্র’- ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের প্রতিবাদে তাকে উদ্দেশ করে বিএনপির এ নেতা বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে আপনারা বাড়ি গাড়ি পুড়িয়েছিলেন, মনে আছে? আবার যে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা হয়েছিল, তা আপনারা সংবিধান থেকে বাদ দিয়ে দিলেন। সেই ব্যবস্থা ফিরিয়ে আনার জন্য বিএনপি ১৩-১৪ সালে আন্দোলন করেছিল। সে আন্দোলনের প্রতি আপনারা নিষ্ঠুর ব্যবহার করেছেন, এ দেশে আপনারা নতুন একটি শব্দ প্রতিষ্ঠা করেছেন। সেটি হলো ‘গুম’।

বাংলাদেশে ‘গুম’ শব্দটি এনেছে আওয়ামী লীগ- এমন মন্তব্য করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, কেউ যদি স্বাধীনতার পক্ষে কথা বলে, সত্য কথা বলে, গণতন্ত্রের কথা বলে, তবে বর্তমান সরকারের পক্ষ থেকে পুরস্কার হলো ‘গুম’। দিনে অথবা রাতে কালো গ্লাসের গাড়িতে করে এসে তুলে নিয়ে যাবে, আর কোনো হদিস পাওয়া যাবে না। গণতান্ত্রিক আন্দোলন নির্মূলে সরকার গুম ও বিচারবহির্ভূত হত্যাকে ব্যবহার করেছে। রাজপথকে রক্তাক্ত করে উপহাস করেছেন, আবার আন্দোলনকে বিলাস বলছেন।

জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার ক্রমাগত কটূক্তি করে আসছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ ছাড়া তাদের তো আর কোনো কর্মসূচি নেই, কোনো কাজ নেই। টাকা লোপাট ও পাচার, জমি দখল সবকিছু করছে তারা।

সাবেক এ ছাত্রনেতা বলেন, জনগণের মধ্যে জিয়াউর রহমান, বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের প্রতি এখনো জনগণের যে অনুভূতি, তাকে তিনি (শেখ হাসিনা) একটুও ম্লান করতে পারেননি। তিনি তার নিজের লোকদের কথা বলার স্বাধীনতা দিয়েছেন, আরও অনেক কিছু দিয়েছেন। এটি এমন একটি দেশ, শুধু সরকার দলীয় লোকজনই কথা বলতে পারবে, আর কেউ পারবে না। বিরোধীদলের কথা বলার ক্ষমতা এ দেশে নেই।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী আশ্রয়হীনদের জন্য প্রকল্প করেছেন। সেটা ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। আর প্রধানমন্ত্রী বলছেন, এটি  হাতুড়ি-শাবল দিয়ে ভেঙে ফেলা হচ্ছে। এর পেছনে যে লাখ কোটি টাকার দুর্নীতি হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী তা উল্লেখ করছেন না। তিনি হাতুড়ি-শাবল উল্লেখ করছেন। অর্থাৎ তিনি দুর্নীতির পক্ষে, দুর্নীতিবিরোধীর পক্ষে নন। যারা আশ্রয়ণ প্রকল্পে দুর্নীতি করেছেন, তাদের তিনি ধরলেন না। তিনি অন্যদিকে দৃষ্টি নিক্ষেপ করলেন।

বিএনপির সিনিয়র এ নেতা দাবি করেন, বর্তমানে দেশে গুন্ডাদের মহামান্বিত করা হচ্ছে। আর যিনি স্বাধীনতার ঘোষক, অন্ধকার দুঃসময়ে জাতিকে যিনি আলোর দিশা দেখিয়েছিলেন, তিনি আজ সরকার দ্বারা নানাভাবে আক্রান্ত। যিনি গণতন্ত্রকে বারবার ফিরিয়ে এনেছেন, সেই বেগম খালেদা জিয়া এ সরকারের দ্বারা নানাভাবে আক্রমণের শিকার হচ্ছেন।

আপনার মতামত লিখুন :