প্রতি মুহূর্তে শোক প্রস্তাব নিতে চাই না: প্রধানমন্ত্রী 

প্রকাশিত : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

ভোরের দর্পণ ডেস্ক:

একাদশ জাতীয় সংসদের চলতি ১৪তম অধিবেশনে তিনজন সংসদ সদস্যের মৃত্যুতে শোকপ্রস্তাব আনা হয়েছে। তিন দিনই প্রধানমন্ত্রী ও সংসদনেতা শেখ হাসিনা শোকপ্রস্তাবের ওপর আলোচনা করেছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, `দুর্ভাগ্য হলো, এই সংসদের একের পর এক সদস্য হারাচ্ছি। এই সংসদে আমরা এতজন সংসদ সদস্য হারালাম, এটা সত্যিই খুব দুঃখজনক। এ রকম প্রতিদিন প্রতি মুহূর্তে শোকপ্রস্তাব নিতে চাই না। আল্লাহ সবাইকে সুস্থ রাখুন।’

আজ মঙ্গলবার জাতীয় পার্টির সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য মাসুদা এম রশীদ চৌধুরীর মৃত্যুতে আনা শোকপ্রস্তাবের ওপর আলোচনাকালে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। এর আগে চলতি অধিবেশনে সরকারদলীয় সংসদ সদস্য আলী আশরাফ ও হাসিবুর রহমান স্বপনের মৃত্যুতে শোকপ্রস্তাবে আলোচনা হয়।

মাসুদা এম রশীদকে স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, `আজকে আমরা আরও একজন সংসদ সদস্যকে হারালাম। তিনি অত্যন্ত বিদুষী ছিলেন। তার মতো শিক্ষা-দীক্ষা ও জ্ঞানী মানুষ মেয়েদের মধ্যে কমই পাওয়া যায়। এ ছাড়া তিনি একাধারে রাজনীতিবিদ, চিত্রশিল্পী, সমাজসেবক, নারী উদ্যোক্তা, খেলাধুলাসহ নারীদের নতুনভাবে প্রেরণা জুগিয়েছেন। এ রকম বহুগুণসম্পন্ন মানুষ আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন। এটা আমাদের সমাজের জন্য বিরাট ক্ষতিসাধন হলো।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার বহুমুখী প্রতিভা নারী সমাজকে প্রেরণা দেবে। সামনে এগিয়ে যাওয়ার শক্তি ও সাহস জোগাবে।

সরকারপ্রধান বলেন, `দুর্ভাগ্য হলো, এই সংসদের একের পর এক সদস্য হারাচ্ছি। এবার যখন শুরু করলাম, দুজন সংসদ সদস্য হারালাম। আবার এবার মুলতবি অধিবেশনের আগে কালকেই (গতকাল) খবর পেলাম এই মৃত্যুর। সত্যি খুবই হৃদয় ভারাক্রান্ত হলো।’

দেশবাসীর উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, `করোনার সময় সবাই যেন স্বাস্থ্য সুরক্ষাটা মেনে চলে। যারা টিকা নিয়েছেন, তাঁদেরকেও বলব স্বাস্থ্য নিয়মগুলো যেন মেনে চলেন। দেশের মানুষ ও প্রবাসের সবার মঙ্গল কামনা করছি।’

এর আগে আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের, বিরোধী চিফ হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গা, জাতীয় পার্টির সাংসদ আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, কাজী ফিরোজ রশীদ, শামীম হায়দার পাটোয়ারী, নাজমা আখতার, আওয়ামী লীগের সাংসদ ওয়াসিকা আয়শা খান, আবদুস সোবহান গোলাপ, মোছলেম উদ্দিন আহমদ ও বিএনপির সাংসদ হারুনুর রশীদ।

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের পরে জাতীয় সংসদে শোকপ্রস্তাব পাশ হয়। পরে মাসুদা এম রশীদের জন্য জাতীয় সংসদে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন সাংসদ এনামুল হক।

আপনার মতামত লিখুন :