করোনার কারণে পহেলা বৈশাখের সব অনুষ্ঠান স্থগিত

প্রকাশিত : ১ এপ্রিল ২০২০

করোনাভাইরাসের বিস্তাররোধে সরকার আসন্ন পহেলা বৈশাখের (১৪ এপ্রিল) সব ধরনের অনুষ্ঠান ও কার্যক্রম স্থগিত করেছে।

বুধবার (১ এপ্রিল) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মাঠ প্রশাসন সমন্বয় অধিশাখা উপসচিব মোহাম্মদ আব্দুল ওয়াদুদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে পাঠানো এ চিঠিতে বলা হয়, করোনাভাইরাসের বিস্তাররোধকল্পে জনসমাগম পরিহার করার লক্ষ্যে আসন্ন ১ বৈশাখ ১৪২৭ বা এ সময়ে সব ধরনের অনুষ্ঠান/কার্যক্রম (তিন পার্বত্য জেলার ‘বৈসাবি’সহ) স্থগিত করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

এর আগে মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) গণভবনে এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নববর্ষের অনুষ্ঠান না করার অনুরোধ জানিয়ে বলেন, এবার পহেলা বৈশাখের প্রোগ্রাম হবে না। পরিস্থিতির কারণে আমাদের বড় বড় জমায়েত এড়িয়ে চলতে হবে।

সবশেষ হিসাবে করোনায় বাংলাদেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৫৪ জন, মারা গেছেন ছয়জন। এছাড়া সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ২৬ জন।

করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে প্রথমে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার। পরে এই ছুটি ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়।

ছুটির সময়ে অফিস-আদালত থেকে গণপরিবহন, সব বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। কাঁচাবাজার, খাবার, ওষুধের দোকান, হাসপাতাল, জরুরি সেবা এই বন্ধের বাইরে থাকছে। জনগণকে ঘরে রাখার জন্য মোতায়েন রয়েছে সশস্ত্র বাহিনীও।

আপনার মতামত লিখুন :