ছাদ থেকে লাফিয়ে এসবির কনস্টেবলের আত্মহত্যা

প্রকাশিত : ৪ মে ২০২০

রাজধানীর খিলগাঁওয়ে ছাদ থেকে লাফিয়ে পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চ (এসবি) শাখার কনস্টেবল তোফাজ্জল হোসেন আত্মহত্যা করেছেন। সোমবার (৪ মে) সকালে খিলগাঁও তিলপাড়ার ১৬৮/এ বাসার পাঁচ তলার ছাদ থেকে লাফিয়ে তিনি আত্মহত্যা করেন। খিলগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, শারীরিক অসুস্থতার কারণে গত ২৯ এপ্রিল ওই পুলিশ সদস্যের করোনা পরীক্ষা করা হয়। তবে রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। করোনা না থাকলেও সে তার স্ত্রীকে জানায় যে সে করোনায় আক্রান্ত হতে পারে। এ নিয়ে তোফাজ্জল মানসিকভাবে হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়েন।

মশিউর রহমান জানান, সোমবার সকাল পৌনে ৮টার দিকে তোফাজ্জল বাসা থেকে দরজা খুলে বের হয়ে বাসার বাইরে থেকে দরজা লাগিয়ে দেন। এর কিছু সময় পর পাঁচ তলার ছাদ থেকে ভারি কিছু পড়ার শব্দ পান তার স্ত্রী। বাসার অন্যরা বের হয়ে দেখেন বাসার সামনের রাস্তায় তোফাজ্জলের রক্তাক্ত মরদেহ পড়ে আছে।

পরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। কনস্টেবল তোফাজ্জল স্ত্রী ও দুই মেয়ে নিয়ে ওই বাসায় ভাড়া থাকতেন।

করোনাভাইরাসের এ পরিস্থিতিতে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়ে ইতোমধ্যে আরও পাঁচ পুলিশ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে সর্বশেষ গত ২ মে মিরপুরের পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্টের (পিওএম) উপপরিদর্শক (এসআই) সুলতানুল আরেফিন মৃত্যুবরণ করেন।

অন্য চার পুলিশ সদস্য হলেন- ওয়ারী ট্রাফিক পুলিশের জসিম উদ্দিন, ডিএমপির পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্ট দক্ষিণ বিভাগের এএসআই মো. আবদুল খালেক, ডিএমপির ট্রাফিক উত্তর বিভাগের কনস্টেবল মো. আশেক মাহমুদ, পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের (এসবি) এসআই নাজির উদ্দিন।

আর করোনাভাইরাসে পুলিশে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৭৪১ জন। এর মধ্যে শুধু ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশেই (ডিএমপি) আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫৬ জন।

আপনার মতামত লিখুন :