ভুতুড়ে বিল: সাত দিনের মধ্যে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০২০

দেশে যখন করোনা মহামারি চলছে তখন বিদ্যুতের বিভিন্ন গ্রাহকের নামে গত কয়েক মাসে ভুতুড়ে বিল করার অভিযোগ ওঠেছে। করোনাকালে এই বিল পরিশোধ করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছে গ্রাহক। বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে অবশেষে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয় এর জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থার উদ্যোগ নিয়েছে। এছাড়া কোনো গ্রাহককে অতিরিক্ত বিল পরিশোধ করতে হবে না বলেও আশ্বস্ত করা হয়েছে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে।

বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) জুম ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিভাগ ও এর আওতাধীন দপ্তর ও কোম্পানির বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন ও অগ্রগতির মে মাসের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

সভায় সিদ্ধান্ত হয়, কোনো অবস্থায় অতিরিক্ত বিল গ্রহণ করা যাবে না।

সভায় বিতরণ কোম্পানিগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালকরা দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিল প্রদান সংক্রান্ত বিষয়টি নিয়ে সংস্থাগুলো পৃথকভাবে গণমাধ্যমের মাধ্যমে গ্রাহকদের কাছে ব্যাখ্যা করবে।

সভায় নসরুল হামিদ মানবসম্পদ উন্নয়ন, সোলার বিদ্যুৎ প্রকল্প, পিডিবির বিদ্যুৎ হাব, স্মার্ট মিটারসহ প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়িয়ে পেপারলেস অফিস করার ওপর গুরুত্ব দেন।

সভায় জানানো হয়, বিদ্যুৎ বিভাগ ২০১৯-২০ অর্থবছরে বিনিয়োগ বা জিওবি খাতে ৮৭টি, প্রকল্প সহযোগিতা খাতে ১১টি ও নিজস্ব অর্থায়নে ৬টিসহ মোট ১০৪টি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। মে পর্যন্ত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নে অর্থিক ৭২.৩৬ শতাংশ ও ভৌত ৭০.৬১ শতাংশ অগ্রগতি হয়েছে। যা জুনের মধ্যে ৯০ শতাংশের বেশি হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

আজকের ভার্চুয়াল সভায় বিদ্যুৎ সচিব সুলতান আহমেদ, পিডিবির চেয়ারম্যান মো. বেলায়েত হোসেন, আরইবির চেয়ারম্যান মঈন উদ্দিন, পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসেন এবং দপ্তর ও কোম্পানিগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :