বসুন্ধরার কম্বল পেয়ে খুশি পদ্মাপারের দরিদ্র মানুষ

প্রকাশিত : ৩ জানুয়ারি ২০২২

ভোরের দর্পণ ডেস্ক:

 

‘শীতের ঠ্যালায় কয়দিন ধরে খুব কষ্টে ছিনু। কয়েকজনকে একটা কম্বলের জন্য বার বার বুইলছিনু। তাও একটা কম্বলও কেউ দেয়নি। শ্যাষে আইজ একটা কম্বল পাইয়্যাছি। এখুন আর কাউকেই বুইলবো না কম্বলের কথা। এটাতেই আমার শীত চলি যাবে।” সোমবার দুপুরে বসুন্ধরা গ্রুপের উদ্যোগে ও কালের কণ্ঠ শুভসংঘের আয়োজনে শীতার্ত মানুষের মাঝে বিতরণকৃত কম্বল পেয়ে এভাবেই আক্ষেপ করে কথাগুলো বলছিলেন বৃদ্ধ নজরুল ইসলাম। তিনি রাজশাহী নগরীর দরিখরবোনা রেললাইন বস্তি এলাকার বাসিন্দা। শুধু নজরুল ইসলাম নয়, তাঁর মতো বসুন্ধরার উদ্যোগে কম্বল পেয়েছেন বস্তির এরকম অসহায় ৫ শতাধিক শীতার্ত মানুষ।

নগরীর শিরোইল কলোনী বস্তির মাজেদা খাতুন বলেন, ‘কুনো মতে ছোট্ট একটা বেড়ার ঘরে বাস করি। পরের বাড়িতে কাজ করে সংসার চালায়। কয়দিনের শীতে খুব কষ্টে আছুনু। কিন্তু আজ বসুন্ধরার একটা কম্বল পাইছি। এখন আর রাতে ঘুমাতে কষ্ট হবে না।’

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের গ্রীণ প্লাজায় কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মেয়র ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এসময় তিনি বলেন, করোনাকালে বসুন্ধরা গ্রুপ দেশব্যাপী অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে নজির সৃষ্টি করেছিলো। এবারও তীব্র শীতে দুর্ভোগে পড়া মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর মতো একটি মহতী উদ্যোগ নিয়েছে। এটিও প্রসংশার দাবিদার। এভাবে বসুন্ধরা গ্রুপ সবসময় মানুষের পাশে থাকবে বলে আশা রাখি।’

এদিকে কম্বল বিতরণের সময় আরও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় কালের কণ্ঠের ব্যুরো প্রধান রফিকুল ইসলাম, শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান, রাজশাহী সভাপতি মঞ্জুর রহমান খান, সাধারণ সম্পাদক আরিফুজ্জামান নবাব, সিনিয়র সদস্য আশিকুর রহমান, সাংবাদিক কাজী গিয়াস, রায়হানুল ইসলাম প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :