৪ দিনের ব্যবধানে আবারও বাড়ল চালের দাম

প্রকাশিত : ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১

ভোরের দর্পণ ডেস্ক:

কোনোভাবেই স্বাভাবিক হচ্ছে না চালের বাজার। চার দিনের ব্যবধানে পাইকারিতে দাম বেড়েছে প্রতি কেজি ২ থেকে ৫ টাকা। মিল মালিকরা দাম আরো বাড়াতে পারে বলে শঙ্কায় রয়েছেন ব্যবসায়ীরা। এদিকে সরকারের দাম বেঁধে দেয়ার পর অস্থিরতা কমেছে ভোজ্যতেলের দামে।

আমদানি করেও অস্থিরতা কাটছে না চালের বাজারে। গত মাসে আমদানি শুরু হওয়ার পর কিছুটা কমলেও আবারো বেড়েছে সব ধরনের চালের দাম। চার দিনের ব্যবধানে দুই টাকা বেড়েছে মোটা চালের দাম। আটাশ ও মিনিকেট বিক্রি হচ্ছে ৫ টাকা বেশি দরে। পর্যাপ্ত আমদানি না হওয়া ও মিল মালিকদের কারসাজিকেই দূষছেন ব্যবসায়ীরা।

চাল ব্যবসায়ীরা জানান, মিনিকেট বিক্রি হচ্ছে ৬১ টাকাম পাইজাম ৪৫ টাকা, গুটি স্বর্ণা ৪৩ টাকা।

এদিকে ভোজ্যতেলের বাজারে স্বস্তি ফিরেছে সরকার দাম বেঁধে দেয়ায়। পাইকারি বাজারে প্রতি কেজি খোলা সয়াবিন ১২২ টাকা ও পাম বিক্রি হচ্ছে ১০৯ টাকায়। এতে প্রতি লিটার সয়াবিন ১১০ টাকা ও পাম তেলের দাম পড়ছে প্রায় ৯৮ টাকা।

ব্যবসায়ীরা জানান, প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা, ৬৫ পয়সা। আর বিক্রি করছি ১২২ টাকা। বোতলজাত সয়াবিন তেল ১১৫ টাকা থেকে ১২৬ টাকায় বিক্রি হচ্চে।

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি খুচরা পর্যায়ে সর্বোচ্চ প্রতি লিটার পাম ১০৪ টাকা, খোলা সয়াবিন ১১৫ টাকা ও বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম ১৩৫ টাকা নির্ধারণ করে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

আপনার মতামত লিখুন :