মেয়রের আশ্বাসে দক্ষিণ সিটির গেট ছাড়ল শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত : ২৫ নভেম্বর ২০২১

১০ দফা দাবি আদায়ে দুপুর থেকেই ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মূল ফটক আটকে বিক্ষোভ করেছিল নটরডেম কলেজের শিক্ষার্থীরা।

পরে বিকেল সোয়া ৪টার দিকে নগর ভবনের মূল ফটকে এসে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দেন। একইসঙ্গে তিনি শিক্ষার্থী নাঈমের মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত ব্যক্তির শাস্তি নিশ্চিত করা হবে বলেও জানান।

মেয়রের আশ্বাসে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা নগর ভবনের মূল ফটক ছেড়ে চলে যায়। ফলে প্রায় আড়াই ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর নগর ভবনের সামনের রাস্তায় পুনরায় যান চলাচল শুরু হয়।

এ সময় শিক্ষার্থীরা ডিএসসিসি ময়লার গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হওয়া নাঈম হাসানের নামে গুলিস্তান মোড়ে একটি ফুটওভার ব্রিজ করার দাবিও জানায়। দাবির পরিপ্রেক্ষিতে মেয়র তাপস শিক্ষার্থীর উদ্দেশে বলেন, ডিএসসিসির নিজস্ব অর্থায়নেই গুলিস্তান মোড়ে একটি ফুটওভার ব্রিজ করে দেওয়া হবে।

এর আগে ১০ দফা দাবি পূরণে ৪৮ ঘণ্টা সময় দেয় নটরডেম কলেজের শিক্ষার্থীরা। এ সময়ের মধ্যে দাবি পূরণ না হলে ফের সড়কে নামার ঘোষণা দিয়েছেন তারা। দুপুর পৌনে ২টা নাগাদ তারা তাদের দাবি জানিয়ে গুলিস্তান ও মতিঝিলের সড়ক ছেড়ে চলে যান। তবে দীর্ঘ সময় শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করে রাখায় ওইসব এলাকায় ব্যাপক যানজট তৈরি হয়।

গুলিস্তান জিরো পয়েন্টে শিক্ষার্থীরা তাদের ১০টি দাবি ঘোষণা করেন। তাদের দাবিগুলো হচ্ছে-

১. যথাযথ তদন্ত করে আমার ভাইয়ের (শিক্ষার্থী নাঈম) হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দেওয়া, ২. জেলা শহরের বিভিন্ন রুটে শুধুমাত্র শিক্ষার্থীদের জন্য বাস সার্ভিস চালু, ৩. স্কুল-কলেজের সামনে হর্ন ও ওভারস্পিডিংয়ের জন্য শিক্ষার্থীদের কাছে জরিমানা ও প্রশাসনের কাছে হস্তান্তরের অধিকার দেওয়া, ৪. সব শিক্ষার্থীর হাফ পাস নিশ্চিত করা, ৫. প্রত্যেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনে একাধিক স্পিড ব্রেকার নির্মাণ, ৬. শহরের প্রতিটি অচল ট্রাফিক লাইটের সংস্করণ এবং সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করা, ৭. ট্রাফিক আইনের সঠিক প্রয়োগ, ৮. জেব্রা ক্রসিংয়ে পূর্ণাঙ্গ ব্যবহার নিশ্চিত করা, ৯. চলন্ত বাসে যাত্রী ওঠানামা করালে প্রত্যেক বাসকে আইনের আওতায় আনা এবং ১০. সর্বোপরি নিরাপদ সড়ক আইনের যথাযথ বাস্তবায়ন করা।

রাজধানীর গুলিস্তান গোলচত্বরে হল মার্কেটের সামনে বুধবার (২৪ নভেম্বর) বেলা ১১টায় ডিএসসিসি ময়লার গাড়ির ধাক্কায় নাঈম হাসান (১৭) নামে নটরডেম কলেজের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি কলেজের মানবিক শাখার ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী। ওই ঘটনার পর থেকেই রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভ করে দুর্ঘটনায় জড়িত প্রকৃত আসামির বিচারের দাবি জানিয়ে আসছেন শিক্ষার্থীরা।

আপনার মতামত লিখুন :