গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রীর আকস্মিক পদত্যাগ

প্রকাশিত : ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নিজ রাজ্য গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি পদত্যাগ করেছেন। রাজ্যের পরবর্তী নির্বাচনের এক বছর আগে অনেকটা অপ্রত্যাশিতভাবে শনিবার মন্ত্রিসভার সদস্যদের নিয়ে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। 

দেশটির বার্তাসংস্থা এনএনআইকে তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নির্দেশনায় গত পাঁচ বছর ধরে গুজরাটের উন্নয়নের যাত্রা চলেছে। এখন নতুন শক্তি ও উদ্যোমে পরবর্তী উন্নয়ন এগিয়ে নেওয়ার সময়; যে কারণে আমি মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

তিনি বলেন, ‘সময়ের সঙ্গে সঙ্গে দায়িত্ব বদলায়। এবার দায়িত্ব যাবে অন্য কারও কাছে। আমাকে দল যে দায়িত্ব দেবে, তা পালন করব।’ আগামী বছর গুজরাটের বিধানসভা নির্বাচনে ভোট অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। বিজয় রুপানি বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বেই বিজেপি গুজরাটে বিধানসভা ভোটে লড়বে।’

ভারতের বাংলা দৈনিক আনন্দবাজার বলেছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং আনন্দীবেন পটেলের পর ফের গুজরাটের এক বিজেপি মুখ্যমন্ত্রীকে পাঁচ বছরের মেয়াদ শেষে হওয়ার আগেই সরে যেতে হলো। ২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদি প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর তার উত্তরসূরি মনোনীত হন আনন্দীবেন। কিন্তু ২০১৬ সালের আগস্টে ইস্তফা দিয়েছিলেন তিনিও; মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছিলেন রুপানি। তার নেতৃত্বেই ২০১৭ সালের বিধানসভা ভোটে জয় পায় বিজেপি।

পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী পদে বিজেপি নেতা আর সি ফালড়ু, সি আর পাটিল, বিদায়ী উপমুখ্যমন্ত্রী নিতিন পটেলের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পুরুষোত্তম রুপৌলা এবং মনসুখ মাণ্ডব্যর নাম নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে। বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক বি এল সন্তোষের উপস্থিতিতে রোববার রাজধানী গান্ধীনগরে গুজরাট বিজেপি পরিষদীয় দলের বৈঠক হবে। সেখানেই পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রীর নাম চূড়ান্ত হতে পারে।

গুজরাটের কংগ্রেস নেতা হার্দিক পটেল শনিবার রূপাণীর পদত্যাগ প্রসঙ্গে বলেন, ‘করোনার ধাক্কায় রাজ্যের অর্থনীতি ভয়াবহভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতেও বিজেপি নেতৃত্ব গুজরাটের কথা না ভেবে রাজনৈতিক সমীকরণ মেলানোর চেষ্টা করে যাচ্ছে।’

আপনার মতামত লিখুন :